কান উৎসবে নেই লাল সবুজের পতাকা

|

চলছে বিশ্বের সবচেয়ে বড় এবং মর্যাদা সম্পন্ন চলচ্চিত্র উৎসব। ৭১-তম কান চলচ্চিত্র উৎসবে অংশ নিয়েছে ১৬০টি দেশের চলচ্চিত্র। বিভিন্ন দেশের প্যাভেলিয়ান বা স্টলের সামনে উড়ছে পতাকা, কিন্তু সেখানে নেই বাংলাদেশের লাল সবুজের পতাকা। অফিসিয়াল সিলেকশানে নেই বাংলাদেশের সিনেমা।

ফরাসি চলচ্চিত্রকার জ্যঁ লুক গদার বলেছিলেন সিনেমা অনেকটা ফিলিস্তিনের মতো। উভয়ে স্বাধীনতা খুঁজছে। বাংলা চলচ্চিত্রের জন্যও যেন কথাটি প্রযোজ্য। ছয় দশকের বাংলা সিনেমা খুঁজছে আন্তর্জাতিক স্বীকৃতি।

দেশের চলচ্চিত্র ইতিহাসের বয়সটা পেরিয়েছে ৬০। সিনেমা নির্মাণের সংখ্যাও ছাড়িয়েছে সাড়ে তিন হাজারের ঘর। এই দীর্ঘ পথ পরিক্রমায় বিশ্ব দরবারে কতোটুকু এগিয়েছে বাংলা চলচ্চিত্র?

প্রতি বছর অর্ধশত সিনেমা তৈরি হলেও এখনো অধরা আন্তর্জাতিক সাফল্য। সারা বিশ্বে নেই বাংলা চলচ্চিত্রের সাফল্য। নেই তেমন অংশগ্রহণও।

কান চলচ্চিত্র উৎসবকে ঘিরে যখন বিশ্বের নামি-দামি শিল্পী-নির্মাতাদের উন্মাদনা; তখন সেই মঞ্চে নিরব দর্শক-বাংলাদেশ। অফিসিয়াল সিলেকশানে নেই বাংলাদেশের সিনেমা। আর তাইতো ফ্রান্সের সাগরপাড়ে যখন উড়ছে নেপাল-ভুটানের মতো দেশের পতাকা। সেখানে নেই লাল-সবুজের পতাকা।

৩৫ বছর পর প্রেক্ষাগৃহে চলচ্চিত্র প্রদর্শন শুরু করেছে সৌদি আরব সরকার। বিশ্বকে তা জানান দিতে দেশটি প্রথমবার অংশ নিয়েছে কানে। শুধু সৌদি আরবই নয়; কানে প্রথমবার পতাকা উড়িয়েছে স্বাধীনতা খুঁজে বেড়ানো ফিলিস্তিনও।









Leave a reply