যে কারণে ভেঙে যায় রাজবধূ মেগানের প্রথম সংসার

|

জমকালো আয়োজন, আলো জলমলে চারপাশ, বিশ্বের তারকাখ্যাতি লোকেরা এসেছেন অতিথি হয়ে। বিয়েতে  খরচ তিন কোটি পাউন্ড। এভাবে  প্রিন্স হ্যারির সঙ্গে বিয়ে হয়েছে হলিউড অভিনেত্রী মেগান মার্কেলের।

কিন্তু ব্রিটিশ রাজপরিবারের ৩৬ বছর বয়সী নতুন সদস্য অভিনেত্রী মেগান মার্কেলের আগে আরও একটি বিয়ে হয়েছিলো। জানা যায়, হলিউডের প্রযোজক ট্রেভর এঙ্গেলসনের সাথে ২০০৪ সালে মন দেওয়া-নেওয়া হয় মেগানের। চুটিয়ে প্রেম শেষে ২০১১ সালে ট্রেভরের সঙ্গে বিয়ের পিঁড়িতে বসেন মেগান। জ্যামাইকায় তাঁদের বিয়ের অনুষ্ঠানও ছিল জাঁকালো ভাবে।

কিন্তু মাত্র ২ বছরের পরই প্রেমের বিয়েটা আর টিকলো না। ২০১৩ সালে তাদের বিবাহবিচ্ছেদ হয়। তবে কেনো তাদের বিচ্ছেদ হয়েছিলো তা সঠিকভাবে জানা না গেলেও বাতাসে ছিলো অনেক কথার গুজব।

 

জানা যায়, টরোন্টোতে ‘স্যুটস’ সিরিজের শুটিংয়ের সময় মেগানের কিছু একটা হয়েছে। তবে এই কিছু একটা কী, সেটা নিয়ে রয়েছে রহস্য।

বিভিন্ন সময় মেগানের ঘনিষ্ঠজনেরা দাবি করেন, ব্যস্ততার কারণে তাঁদের মধ্যে দূরত্ব তৈরি হয়। যেটা তাঁদের সম্পর্কে ইতি টানতে বাধ্য করে শেষ পর্যন্ত।

মেগানের এক বন্ধু কিছুটা ব্যাখ্যাও করেছেন এই বিচ্ছেদের, ‘মেগান শুটিংয়ের কাজে টরোন্টো পড়ে থাকত। আর ট্রেভর লস অ্যাঞ্জেলেসে। বিমানে পাঁচ ঘণ্টার লম্বা ভ্রমণ। এভাবে কোনো বিবাহিত জীবন চলতে পারে না।’ সম্পর্কটা এতই তিক্ত হয়ে যায় যে তালাকের পর মেগান নাকি বিয়ের আংটি পর্যন্ত ট্রেভরকে ফেরত পাঠান।

 

 









Leave a reply