৯ জেলায় ‘বন্দুকযুদ্ধে’ নিহত ১১, মাদক ও অস্ত্র উদ্ধার

|

আবারও দেশের ৯ জেলায় একরাতে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ ১১ জনের নিহতের কথা জানিয়েছে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী। দেশের কুমিল্লা, চুয়াডাঙা, নেত্রকোণা, ফেনী, নীলফামারী, চট্টগ্রাম, ব্রাহ্মণবাড়িয়া, নারায়ণগঞ্জ ও দিনাজপুরের বিরামপুরে গতকাল সোমবার দিবাগত রাতে এসব ‘বন্দুকযুদ্ধ’ হয়।

কুমিল্লা:

পুলিশ জানায়, সীমান্ত এলাকা থেকে মাদকের একটি চালান আসছে, এমন খবর পেয়ে গত রাতে কুমিল্লা জেলা সদরের বিবির বাজার অরণ্যপুর এলাকায় অভিযান চালানো হয়। উপস্থিতি টের পেয়ে পুলিশকে লক্ষ্য করে গুলি ছোঁড়ে দুর্বৃত্তরা। পুলিশও পাল্টা গুলি চালালে আহত হয় শরীফ ও পিয়ার নামে দু’জন। হাসপাতালে নেয়া হলে চিকিৎসক তাদের মৃত ঘোষণা করেন।

নিহত শরীফের নামে ৫টি এবং পিয়ারের নামে ১৩টি মাদকের মামলা আছে বলে জানায় পুলিশ।

চুয়াডাঙ্গা:

চুয়াডাঙ্গার আলমডাঙ্গাতেও ‘বন্দুকযুদ্ধে’ মারা গেছে একজন। নিহত কামরুজ্জামান সাদু শীর্ষ মাদক ব্যবসায়ী বলে জানায় পুলিশ। ঘটনাস্থল থেকে উদ্ধার করা হয়েছে পিস্তল, গুলি ও ফেনসিডিল।

নেত্রকোণা:

নেত্রকোণাতেও ‘বন্দুকযুদ্ধে’ আমজাদ নামে একজন নিহতের দাবি করেছে পুলিশ। নিহত ব্যক্তি মাদক ব্যবসার সাথে ভাড়াটে খুনি হিসেবে কাজ করতো বলেও জানানো হয়। তার নামে নেত্রকোণা মডেল থানায় বিভিন্ন অপরাধের ১৩টি মামলা আছে।

ফেনী:

এদিকে, ফেনীতে র‍্যাবের সাথে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ মঞ্জুরুল আলম নামে তালিকাভুক্ত মাদক ব্যবসায়ী নিহত হয়েছে। ঘটনাস্থল থেকে উদ্ধার করা হয় বিদেশি পিস্তল ও গুলি। এরআগে ২০১৫ সালেও একবার ৫ লাখ পিস ইয়াবাসহ র‍্যাবের হাতে ধরা পড়েছিল মঞ্জুরুল।

এছাড়া নীলফামারীতে ২ এবং চট্টগ্রাম, ব্রাহ্মণবাড়িয়া, নারায়ণগঞ্জ ও দিনাজপুরের বিরামপুরেও ‘বন্দুকযুদ্ধে’ আরও চার জন নিহত হয়েছে।

যমুনা অনলাইন: আরএম









Leave a reply