এক্সরে-তে শঙ্কা কমলো, ২ সপ্তাহে ফিট হতে পারবেন সালাহ

|

সবাই ভয় পেয়ে গিয়েছিলেন। লিভারপুল কোচ সংবাদ সম্মেলন শেষে যখন বললেন, ‘ওর ইনজুরি খুবই সিরিয়াস’, তখন ভয় আরও বাড়লো। ভক্তরা হতাশায় নিমজ্জিত। যার খেলা দেখবেন বলে প্রস্তুতি নিচ্ছিলেন সেই মোহাম্মদ সালাহ নাকি বিশ্বকাপ মিশন থেকেই বাদ পড়লেন!

তবে শেষমেশ আশার আলো ফুটে ওঠেছে। মাঠ থেকে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়ার পর যে এক্সরে করা হয়েছিলো সালাহ’র কাঁধে তাতে আশাব্যঞ্জক ফলাফল এসেছে। শঙ্কিত হওয়ার মতো কিছু নেই বলে জানিয়েছে মিশরীয় ফুটবল এসোসিয়েশন কর্তৃপক্ষ।

এসোসিয়েশনের এক বিবৃতিতে মিশরীয় টিমের ডাক্তার মোহাম্মদ আবুল এলা বলেছেন, ‘লিভারপুলের মেডিকেল টিমের সাথে আমার কথা হয়েছে। তার অবস্থা সম্পর্কে নিশ্চিত হয়েছি। ওর বিশ্বকাপে খেলার ব্যাপারে আমরা আশাবাদী।’

এদিকে আজ রোববার মিশরের যুব ও ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী খালেদ আবদে ইলাজি জানিয়েছেন, সালাহ বিশ্বকাপ স্কোয়াডে থাকছেন। এবং তার আশা দলের প্রধান খেলোয়াড়টি দুই সপ্তাহের মধ্যেই বর্তমান ইনজুরি থেকে সেরে উঠতে পারবেন।

ম্যাচ শেষে সাংবাদিক সম্মেলনে লিভারপুল কোচ বলেছিলেন, সালাহর আঘাত গুরুতর৷ সত্যিই খারাপভাবে চোট পেয়েছে ও৷ এক্স-রে করানোর জন্য হাসপাতালে রয়েছে সালাহ৷ ওকে দেখেও মোটেও ভালো লাগছে না৷ মনে হচ্ছে হয় কাঁধ ভেঙেছে৷ আমরা একজন দারুণ খেলোয়াড়কে হারালাম৷ হয়ত বিশ্বকাপের আগে মিশর তাদের সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ ফুটবলারকে মিস করতে পারে।

এরপরও সালাহর সুস্থতার ব্যাপারে আশা বাঁচিয়ে রেখে ক্লপ বলেন, আমি এখনও আশা রাখি এসব যাতে কোনওটাই না হয়৷

গত রাতে চ্যাম্পিয়ন্স লিগের ফাইনাল ম্যাচটিতে প্রথমার্ধের ৩০ মিনিটে রিয়াল ডিফেন্ডার রামোসেকে কাটিয়ে বল বের করে নিতে চান সালাহ৷ এই সময় রামোসের সঙ্গে ধাক্কা লাগলে কাঁধে চোট পেয়ে মাঠে শুয়ে পড়েন মিশরীয় ফরোয়ার্ড৷

মাঠে চিকিৎসক এসে চেষ্টা করেন মিশরের ‘মেসি’কে সুস্থ করার৷ চিকিৎসক মাঠ ছাড়ার পর খেলা চালিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করেন সালাহ৷ কিন্তু চোট গুরুতর হওয়ার জন্য মাঠ ছাড়তে বাধ্য হন ইংলিশ প্রিমিয়র লিগের সর্বোচ্চ গোলস্কোরার৷









Leave a reply