তিন বছর ধরে রোগীদের বিনামূল্যে সাহরি খাওয়ান নুর নাহার

|

ব্যাতিক্রমী এক উদ্দ্যেগ বেছে নিয়েছেন মেহেরপুরের নুর নাহার। তিন বছর যাবৎ রমজান মাস এলেই তিনি হাসপাতালের রোগিদের মধ্যে বিনামূল্যে সাহরির খাবার বিতরণ করেন। নুর নাহারের এমন উদ্যোগ দৃষ্টি কেড়েছে সবার।

মেহেরপুর শহরের ওয়াপদা পাড়ার বাসিন্দা নূর নাহার বেগম। তিন বছর আগে সন্তানহারা হন। সন্তানের জন্য দোয়া নিতে তিনি বেছে নেন হাসপাতালে ভর্তি রোগীদের মাঝে সাহরি খাওয়ানোর উদ্যোগ। তিন বছর ধরে তিনি এই কাজ করে চলেছেন। রমজান মাস এলেই প্রথম দিন গভীর রাতে খাবার নিয়ে ২৫০ শয্যার মেহেরপুর জেনারেল হাসপাতালে ছুটে যান। নিজের হাতে রান্না করে কোনদিন সাদা ভাতের সাথে ডাল, ডিম, সবজি কোনদিন মাছ কিংবা মাংস দিয়ে সমস্ত রোগীদের মাঝে খাবার বিতরণ করেন। সন্তান হারানোর কষ্ট ঘুচাতে তিনি আমৃত্যু এমন দৃষ্টান্তমূলক কাজ করে যাবেন বলেও জানান।

প্রতিদিন রান্না করে আনা সাহরির মানসম্মত খাবার খেতে স্বাচ্ছন্দ বোধ করেন রোগীরা। নুর নাহারের এই উদ্যোগে খুশি হাসপাতালে ভর্তি থাকা রোগী ও রোগীর স্বজনেরা।
রোগীর স্বজনদের মাঝে নুর নাহারের সাথে খাবার বিতরণে অংশ নেয় স্থানীয়রা। গত তিন বছর ধরে ভাত, মাছ, মাংস ও ডিম দিয়ে এই খাওয়ানো হচ্ছে বিনামূল্যে।

নুর-নাহারের এমন উদ্দ্যেগে গর্বিত তার পরিবার, পাশাপাশি জেলার বিত্তবান ও সামর্থবান মানুষেরা যদি ব্যাতিক্রমী এই ধরনের উদ্দ্যোগ গ্রহন করে তাহলে সমাজের চিত্র পালটে যাবে বলে মনে করেন সচেতন মানুষেরা।

ছেলে মারা যাওয়ার পর গত তিন বছর থেকে নিজ উদ্যোগে হাসপাতালে থাকা রোগি ও রোগির স্বজনদের রমজান মাস ব্যাপি ভোর রাতে সেহরী খাওয়া শুরু করেন তিনি। ছেলের দোয়ার জন্য যতদিন বেঁচে থাকবে এই মহৎ কাজ করে যাওয়ার আশা ব্যক্ত করেন তিনি।









Leave a reply