ঋণ পরিশোধ না করায় ধোনির দুই ফ্ল্যাট নিলামে!

|

নিলামে উঠতে চলেছে ভারতের ক্রিকেট সুপারস্টার মহেন্দ্র সিংহ ধোনির রাঁচির দুই ফ্ল্যাট। দুটি ফ্ল্যাটের আয়তন যথাক্রমে ১১০০ ও ৯০০ স্কয়ার ফুট।

রাঁচির দোন্ডায় শিবম প্লাজাতে রয়েছে ধোনির এই দুই ফ্ল্যাট। কিন্তু কেন নিলামে ওঠানো হবে তারকা ক্রিকেটারের এই দুই ফ্ল্যাট?

ভারতীয় গণমাধ্যমে জানানো হয়েছে, ফ্ল্যাটের বিল্ডার্স দুর্গা ডেভেলপার্স হিডকোর থেকে লোন নিয়েছিল। তবে এখনো দুর্গা ডেভেলপার্স হাডকোর লোনের অর্থ মেটাতে পারেনি।

এই নন-পেমেন্ট ইস্যুতে নিলামের দাঁড়িপাল্লায় ধোনির নিজস্ব দুই ফ্ল্যাট। ইতিমধ্যেই হাডকো শিবম প্লাজার নিলামের প্রস্তুতি শুরু করে দিয়েছে।

এর আগে দুটি বিল্ডিংয়ের সম্পত্তির অর্থের মূল্যায়ন করা হয়েছে। এলাহাবাদের ঋণ পুনরুদ্ধার আপিল কমিটি নিলামের বেস প্রাইস ঠিক করার নির্দেশ দিয়েছে।

আদালতের পক্ষ থেকে ৬ কোটি টাকার লোনের জন্য উপযুক্ত সুদসহ ক্ষতিপূরণের অঙ্ক নির্ধারিত হবে। তবে শুধুমাত্র ধোনির দুটি ফ্ল্যাটই নয়, গোটা কমপ্লেক্সেরই মূল্যাঙ্কন করা হবে।

হাডকোর থেকে ১২ কোটি ৯৫ লাখ টাকার লোন নিয়েছিল দুর্গা ডেভেলপার্স। জি+১০ ফ্লোর হিসেবে ফ্ল্যাট তৈরি করার প্রস্তাবনা দেয়া হয়েছিল।

কিন্তু ফ্ল্যাট তৈরির সময়েই দুর্গা ডেভেলপার্সের সঙ্গে জমির মালিকের বিবাদ তৈরি হয়। এই কারণে ৬ কোটি টাকা লোন দেয়ার পর বাকি টাকা আটকে দেয়া হয় হাডকোরের পক্ষ থেকে।

জি+৬ ফ্লোর তৈরি হওয়ার পর নির্মাণকাজ বন্ধ করে দেয়া হয়। পাশাপাশি লোনের অর্থ মেটাতে দেরি হওয়ায় দুর্গা ডেভলপার্সকে ঋণখেলাপি ঘোষণা করা হয়।

ধোনি এই বিল্ডিংয়েরই গ্রাউন্ড ফ্লোরের দুটি ফ্ল্যাটের জন্য ইতিমধ্যেই দেড় কোটি টাকা দিয়ে ফেলেছেন। তবে ধোনিকে এই অর্থ ফেরত দেয়া হবে নয়তো অন্যত্র ফ্ল্যাট দেয়া হবে।

যদিও ধোনির দাদা নরেন্দ্র সিংহ ধোনি এই ঘটনায় ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন। তিনি বলেছেন, প্রোজেক্ট নষ্ট হওয়ার জন্য দায়ী হাডকোই।

তার দাবি, তিন কোটি টাকা দেয়া হয়েছে ইতিমধ্যেই। দুর্গা ডেভেলপার্স ও হাডকোর ফাঁদে আটকে গিয়েছেন তারা।









Leave a reply