গাঁজা সেবন বৈধ করলো কানাডা

|

বিনোদনমূলক উদ্দেশ্যে গাঁজা উৎপাদন, সেবন ও বিক্রিকে বৈধ ঘোষণা করেছে কানাডা। মঙ্গলবার দেশটির সিনেটে পাশ হওয়া এক ঐতিহাসিক বিলে ৫২-২৯ ভোটে প্রস্তাবটি পাশ হয়। পৃথিবীর দ্বিতীয় রাষ্ট্র হিসেবে এবং জি-৭ ভুক্ত প্রথম রাষ্ট্র হিসেবে বিনোদনমূলক উদ্দেশ্যে গাঁজা সেবন বৈধ করলো কানাডা। অবশ্য, তাদের প্রতিবেশী রাষ্ট্র মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের ৯টি অঙ্গরাজ্য ও ডিস্ট্রিক্ট অব কলম্বিয়াতে বিনোদনমূলক উদ্দেশ্যে গাঁজা সেবন বৈধ। এছাড়া, ৩০টি প্রদেশে ঔষধ হিসেবেও গাঁজার বৈধতা প্রদান করা হয়েছে।

‘বিল সি-৪৫’ বা ‘ক্যানাবিজ অ্যাক্ট’ নামে পরিচিত এই আইন পাশের মাধ্যমে কানাডার প্রধানমন্ত্রী জাস্টিন ট্রুডো তার নির্বাচনী প্রতিশ্রুতি বাস্তবায়ন করেছেন। অফিসিয়াল ফেসবুক পেইজে ট্রুডো লিখেছেন, আমাদের শিশুদের পক্ষে গাঁজা পাওয়া খুব সহজ, এবং এ সুযোগটি লুফে নিচ্ছে অপরাধীরা। গাঁজাকে বৈধকরণ ও নিয়ন্ত্রণের পরিকল্পনা সিনেটে পাশ হয়েছে। প্রতিশ্রুতি রেখেছি।

কানাডার বিচার বিষয়ক মন্ত্রী জডি উইলসন বলেন, এটা একটি এতিহাসিক পদক্ষেপ। এর ফলে গাঁজার ঝুঁকি থেকে শিশুদের মুক্ত রাখা সহজ হবে। একে কেন্দ্র করে সংঘবদ্ধ অপরাধের মাত্রাও কমে আসবে।

২০১৭ সালের ১৩ এপ্রিল থেকে বিনোদনমূলক কাজে গাঁজাকে বৈধ করার প্রক্রিয়া শুরু করে কানাডা। নভেম্বরে প্রস্তাবটি হাউস অব কমন্সে পাশ হয়। সিনেটে সেটি চূড়ান্তভাবে অনুমোদিত হলো। তবে এটি বাস্তবায়নে অক্টোবর পর্যন্ত সময় লেগে যেতে পারে।

এর আগে, ২০১৩ সালের ডিসেম্বরে পৃথিবীর প্রথম রাষ্ট্র হিসেবে গাঁজা উৎপাদন, সেবন ও বিক্রিকে বৈধ ঘোষণা করে উরুগুয়ে।

যমুনা অনলাইন: টিএফ









Leave a reply