নাটোরে ছাত্রীকে অপহরণ ও ধর্ষণে অভিযুক্ত প্রধান শিক্ষককে সাময়িক বরখাস্ত করলো স্কুল কমিটি

|

ছাত্রীকে অপহরণ ও ধর্ষণের ঘটনার মূল অভিযুক্ত ফিরোজ আহমেদ।

স্টাফ করেসপনডেন্ট, নাটোর:

নাটোরের গুরুদাসপুর উপজেলার নাজিরপুরপুর মরিয়ম মেমোরিয়াল বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের এসএসসি পরীক্ষার্থীকে অপহরণ করার পর ধর্ষণের ঘটনায় অভিযুক্ত প্রধান শিক্ষক ফিরোজ আহমেদকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে।

সোমবার (১০ অক্টোবর) সাময়িক বরখাস্তের বিষয়টি নিশ্চিত করে স্কুলের ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি আব্দুল হাই বলেন, স্কুলের এক এসএসসি পরীক্ষার্থীকে অপহরণ করে ধর্ষণ করার অভিযোগে প্রধান শিক্ষক ফিরোজের বিরুদ্ধে নারী ও শিশু নির্যাতন আইনে থানায় একটি মামলা দায়ের করা হয়েছে। এ ঘটনায় স্কুলের ম্যানেজিং কমিটির সিদ্ধান্ত অনুযায়ী তাকে সাময়িকভাবে বহিষ্কার করা হয়েছে।

উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার মো. ওয়াহেদুজ্জামান এ ব্যাপারে বলেন, প্রধান শিক্ষক ফিরোজ আহমেদকে সাময়িক বরখাস্ত করে সরকারি বিধি মোতাবেক জৈষ্ঠতার ভিত্তিতে তার স্থানে মোছা. ফরিদা খাতুনকে দায়িত্ব দেয়া হয়েছে।

প্রসঙ্গত, গত শনিবার (১ অক্টোবর) সকাল ১০টার দিকে এক এসএসসি ছাত্রী ব্যবহারিক পরীক্ষা দিতে স্কুলে যান। পরীক্ষা শেষে স্কুলের মূল গেটের সামনে অবস্থানের সময় প্রধান শিক্ষক ফিরোজ আহমেদ তাকে জোরপূর্বক মাইক্রেবাসে তুলে নিয়ে যায়। পরে রাজশাহীর এক বাসার আটকে রেখে পিস্তল দিয়ে ভয়ভীতি দেখিয়ে ওই ছাত্রীকে কয়েক দফা ধর্ষণ করে ফিরোজ। এ ঘটনায় ওইদিন রাত ১১টায় ভূক্তভোগীর মা বাদী হয়ে ফিরোজ আহমেদসহ আরও দুইজনকে আসামি করে গুরুদাসপুর থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে একটি মামলা দায়ের করেন। এরপর, তথ্য প্রযুক্তির সহায়তায় ভুক্তভোগীকে উদ্ধার করা হলেও পালিয়ে যায় অভিযুক্ত ফিরোজ আহমেদ। এ ঘটনায় এখন পর্যন্ত কাউকে গ্রেফতার করতে পারেনি পুলিশ।

/এসএইচ


সম্পর্কিত আরও পড়ুন




Leave a reply