শহীদ মিনার ভাঙচুরের অভিযোগে যুবলীগ নেতা আটক

|

সাতক্ষীরা প্রতিনিধি

বিদ্যালয় মাঠের নবনির্মিত শহীদ মিনার ভাঙচুরের অভিযোগে সাতক্ষীরা সদরের বাঁশদহা ইউনিয়ন যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক খোরশেদ আলম রিপনকে আটক করেছে পুলিশ। মঙ্গলবার(২৬জুন) সন্ধ্যায় সদর উপজেলার হাওয়ালখালী এলাকা থেকে আটক করা হয়।

স্থানীয়রা জানান, হাওয়ালখালী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের মাঠে কোন শহীদ মিনার না থাকায় স্থানীয় হাওয়ালখালী তরুণ সংঘের পক্ষ থেকে বিদ্যালয়ের মাঠে শহীদ মিনার নির্মাণ কাজ শুরু করা হয়। এ সময় বাঁশদহা ইউনিয়ন যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক খোরশেদ আলম রিপন সহ কয়েকজন  তরুণ সংঘের সভাপতি আলাউদ্দিনের কাছে ২৫ হাজার টাকা চাঁদা দাবি করেন। টাকা না দিলে ওই শহীদ মিনার নির্মাণ করতে দেবে না বলে হুমকি প্রদান করেন। কিন্তু চাঁদার টাকা না দিয়ে স্কুলের মাঠে আলাউদ্দীন শহীদ মিনার নির্মাণ করেন। এর পর গত ১১ ফেব্রয়ারি রাতের আঁধারে দুর্বৃত্তরা নবনির্মিত শহীদ মিনারটি ভাঙচুর করে। পরদিন এ ঘটনায় অজ্ঞতনামা ১০/১২ জনকে আসামি করে একটি মামলা দায়ের করেন আলাউদ্দিন।

তরুণ সংঘের সভাপতি আলাউদ্দিন জানান, ভাষা শহীদদের স্মৃতি রক্ষার্থে ও তাদের স্মরণের জন্য শহীদ মিনারটি অত্যন্ত প্রয়োজন ছিল। আমি ও স্থানীয় তরুণরা বিদ্যালয়ের মাঠে শহীদ মিনার নির্মাণ করেছিলাম যেটা একটা ভাল উদ্যোগ ছিল। কিন্তু চাঁদা না দেয়ায় রিপনসহ স্থানীয় নেশাগ্রস্থ কিছু যুবক রাতের আঁধারে সেই শহীদ মিনারটি ভাঙচুর করে।

সাতক্ষীরা সদর থানার এস আই প্রদীপ রায় আটকের বিষয়টির নিশ্চিত করে বলেন, খোরশেদ আলম রিপনকে চাঁদাবাজি ও শহীদ মিনার ভাঙচুরের অভিযোগে আটক করা হয়েছে। এ ব্যাপারে তদন্ত করে পরবর্তী পদক্ষেপ গ্রহণ করা হবে









Leave a reply