জাকির নায়েককে ভারতে ফেরত পাঠানো হচ্ছে না: মালয়েশিয়ার পুলিশপ্রধান

|

ভারতীয় একাধিক সংবাদমাধ্যমে প্রকাশিত ‘জাকির নায়েককে আজ রাতে ভারতে হস্তান্তর করা হতে পারে’ এমন খবরকে ‘অসত্য’ বলে নিশ্চিত করেছেন মালয়েশিয়ার পুলিশপ্রধান। আজ বুধবার মালয়েশিয়ান পত্রিকা দ্য স্টার’কে এ তথ্য নিশ্চিত করেন তান শ্রী মোহাম্মদ ফুজি হারুন। তিনি বলেন, ‘আজ রাতে জাকির নায়েককে ভারতে পাঠানো হচ্ছে না।’

এর আগে ভারতীয় কয়েকটি সংবাদমাধ্যমের প্রতিবেদনে দাবি করা হয়, আজ বুধবার রাতের কোনো এক ফ্লাইটে ভারতে পাঠানো হতে পারে ইসলামী বক্তা ও টিভি উপস্থাপক ডা. জাকির নায়েককে। মালয়েশিয়ার সরকারি একটি সূত্রের বরাতে এনডিটিভি এ খবর প্রকাশ করেছে। টাইমস অব ইন্ডিয়া, ইকোনোমিক টাইমস ইত্যাদি সংবাদমাধ্যমও এ বিষয়ে প্রতিবেদন করেছে।

তবে জাকির নায়েক বলেছিলেন, খবরটি সম্পূর্ণ মিথ্যা। তিনি বলেন, ‘সঠিক বিচার পাওয়ার বিষয়ে নিশ্চিত না হয়ে ভারতে ফেরার কোনোই পরিকল্পনা আমার নেই। যখন মনে হবে সরকার আমার প্রতি নিরপেক্ষ আচরণ করবে তখন নিশ্চয়ই আমার মাতৃভূমিতে ফিরে যাবো।’

ভারত সরকার জনাব জাকিরের বিরুদ্ধে ‘সন্ত্রাসে মদদ দেয়া’ ও মানিলন্ডারিংয়ের অভিযোগ এনে মামলা করেছে। তার মালিকানাধীন পিস ফাউন্ডেশন ও পিস টিভি বন্ধ করে দিয়েছে। এরপর তিনি মালয়েশিয়ায় আশ্রয় নিলে সেখানে তাকে স্থায়ী বসবাসের অনুমতি দেয় সে দেশের সরকার।

তবে ভারতীয় গোয়েন্দারা তদন্তের পর ডা. জাকিরের বিরুদ্ধে সন্ত্রাসে মদদ দেয়ার অভিযোগের সত্যতা পাননি বলে সাম্প্রতিক সময়ে ভারতীয় সংবাদমাধ্যমে খবর প্রকাশিত হয়েছে।

ভারত সরকার তাকে মালয়েশিয়া থেকে ফেরত আনার জন্য সর্বাত্মক চেষ্টা করছে। সদ্য গত হওয়ার নাজিব রাজাকের সরকারের আমলে আশ্রয় পাওয়া এই বক্তাকে নিয়ে বর্তমান মালয়েশিয়া সরকার ইতিবাচক বা নেতিবাচক কোনো অবস্থান এখনও জানায়নি। তবে তার বিরুদ্ধে মালয়েশিয়ায়ও ‘ধর্মীয় উস্কানিমূলক বক্তব্য প্রদানের’ অভিযোগ তুলেছে কিছু মালয় সংগঠন। তাদের অভিযোগের প্রেক্ষিতে গত মাসে দেশটির স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেছিলেন, জাকির নায়েক বা অন্য যে কেউ কোনো আইন লঙ্ঘন করলে তাকে বিচারের মুখোমুখি হতে হবে।









Leave a reply