বাকি ৪ ফুটবলার ও তাদের কোচকে উদ্ধারে অভিযান শুরু

|

থাইল্যান্ডের দুর্গম গুহায় আটকে পড়া বাকি ৪ ফুটবলার ও তাদের কোচকে উদ্ধারে তৃতীয় দিনের অভিযান শুরু করেছেন ডুবুরিরা। মঙ্গলবার স্থানীয় সময় সকাল ১০টা ৮ মিনিটে এ অভিযান শুরু হয়েছে। থাই কর্তৃপক্ষ আশা করছেন, আজকের মধ্যেই তাদের উদ্ধার করা সম্ভব হবে।

তবে তৃতীয় দিনের অভিযান চ্যালেঞ্জের মুখে পড়তে পারে বলে ধারণা করা হচ্ছে। কারণ এর আগে শারীরিক ভাবে যারা বেশি সবল তাদেরই বের করেছে ডুবুরি দল। সবচেয়ে জটিল পথ ‘টি জংশন’ দিয়ে চলাচল নির্বিঘ্ন করতে ড্রিল দিয়ে পাথর কাটা হচ্ছে। যেখানে ডুবুরি ও অক্সিজেন সিলিন্ডার এক সাথে পরিবহন করা সম্ভব হয়না। থাই নেভি সিল তাদের ফেসবুক পেইজে জানিয়েছে, সোমবারের চেয়ে আজকের উদ্ধার অভিযানে বেশি সময় লাগবে। এদিকে উদ্ধার কর্মীদের সঙ্গে একজন অতিরিক্ত ডাক্তার ও তিনজন নেভি সিলকে পাঠানো হয়েছে।

চিয়াং রাই প্রদেশের গভর্নর নারংসাক ওসাতানাকর্ন বলেন, আমরা আশা করছি আজকের মধ্যে এবং একই সময়ে পাঁচজনকে উদ্ধার করা সম্ভব হবে। উদ্ধার অভিযানে প্রয়োজনীয় সব সরঞ্জাম, রশি এবং অক্সিজেন সিলিন্ডার ভেতরে পাঠানো হয়েছে। শেষে দিনে ১৯ জন ডুবুরি কিশোরদের উদ্ধারে নেতৃত্ব দিচ্ছেন। এরই মধ্যে সবচেয়ে জটিল সময়গুলো পেরিয়ে এসেছি আমরা। আশা করছি শেষ ধাপেও সফল হবো।

২৩ জুন থাইল্যান্ডের অন্যতম দুর্গম গুহা থাম লুয়াংয়ে আটকা পড়েন ১২ জন ফুটবলার ও তাদের কোচ। আটকে পড়া কিশোরদের বয়স ১১ থেকে ১৬ বছর এবং তাদের কোচের বয়স ২৫ বছর। ৯ দিন পর তাদের খুঁজে পায় ব্রিটিশ ডুবরিদের একটি দল। পরে রোববার তাদের উদ্ধারে অভিযান শুরু করে থাই কর্তৃপক্ষ। অভিযানে ৯০ জন অংশ নিচ্ছেন। যাদের মধ্যে ৪০ জন থাইল্যান্ডের। বাকিরা বিদেশী।

অভিযানের প্রথম দিন ৪ জন ফুটবলারকে উদ্ধার করে চিয়াং রাই শহরের একটি হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। আর দ্বিতীয় দিন গতকাল আরো ৪ ফুটবলারকে উদ্ধার করে উদ্ধার কর্মীরা। তাদেরও হাসপাতালে নেয়া হয়। তাদের সার্বিক খোঁজ খবর নিতে এরই মধ্যে হাসপাতালে গেছেন দেশটির প্রধানমন্ত্রী প্রয়ুথ চান ওঁচা।

থাইল্যান্ডের স্বাস্থ্য কর্মকর্তা মেই সাই জানান, উদ্ধার হওয়া আট কিশোর শারীরিকভাবে খুবই ভালো আছে। গুহার ভেতরে দীর্ঘ সময় আটকে থাকার প্রভাব পড়তে পারে তাদের মানসিক অবস্থায়। তবে হাসপাতালে সেই পরিস্থিতিও তারা কাটিয়ে উঠেছে।









Leave a reply