পাঁচ জেলায় ‘বন্দুকযুদ্ধে’ ৬ জন নিহত

|

দেশের বিভিন্ন স্থানে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ ছয়জন নিহত হয়েছে। এরমধ্যে পাঁচজনের মৃত্যু হয়েছে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সাথে ‘বন্দুকযুদ্ধে’। আর দুইদল ডাকাতের মধ্যে গোলাগুলিতে প্রাণ গেছে একজনের।

ঢাকার কেরানীগঞ্জে পুলিশের সাথে গোলাগুলিতে মোহাম্মদ নূর নামে একজন নিহত হয়েছে। পুলিশের দাবি, সে চিহ্নিত মাদক কারবারী। কুষ্টিয়ায় র‍্যাবের সাথে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ দুজন নিহত হয়েছে। র‍্যাব ১২ এর ভাষ্য, মাদকের চালান হাতবদল হচ্ছে এমন সংবাদের ভিত্তিতে রাতে কুষ্টিয়ার কাটদহর চরে অভিযান চালানো হয়। এসময় র‍্যাব সদস্যদের লক্ষ্য করে গুলি চালায় মাদক বিক্রেতারা। র‍্যাবও পাল্টা গুলি চালালে আহত হয় ফটু মুন্না ও রাসেল আহমেদ নামে দুজন। হাসপাতালে নেয়া হলে চিকিৎসক তাদের মৃত ঘোষণা করেন। ঘটনাস্থল থেকে অস্ত্র-গুলি ও ফেন্সিডিল উদ্ধার করা হয়েছে। আহত দুই র‍্যাব সদস্যকে দেয়া হয়েছে প্রাথমিক চিকিৎসা।

লক্ষ্মীপুর সদরের ঝুমুর সিনেমা হল এলাকা থেকে মঙ্গলবার সোহেল রানা নামে এক ডাকাতদলের সদস্যকে আটক করা হয়। পুলিশ আরও জানায় রাতে তাকে নিয়ে রায়পুর এলাকায় অভিযান চালানো হয়। এসময় সোহলকে ছিনিয়ে নিতে গুলি করে তার সহযোগীরা। পুলিশ পাল্টা গুলি করলে আহত হয় সোহেল। হাসপাতালে নেয়া হলে চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। ঘটনাস্থল থেকে অস্ত্র, গুলি ও ইয়াবা উদ্ধারের দাবি করা হয়েছে। সোহেলে বিরুদ্ধে হত্যাসহ ২২টি মামলা রয়েছে।

নাটোরের বড়াইগ্রামে ওসমান গণি নামে একজন নিহত হয়েছে। র‍্যাব-৫ এর ভাষ্য, বাহিমালী বাজার এলাকায় টহল দেয়ার সময় তাদের একটি দলের ওপর গুলি চালায় মাদককারবারীরা। পাল্টা গুলি করে র‍্যাব সদস্যরা। গুলিবিদ্ধ ওসমানকে হাসপাতালে নেয়া হলে চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করে। ঘটনাস্থল থেকে অস্ত্র-গুলি ও মাদক উদ্ধারের দাবি করেছে র‍্যাব। এছাড়া যশোরের গাঙ্গুলিয়া এলাকায় দুই দল ডাকাতের মধ্যে গোলাগুলিতে একজন নিহত হয়েছে। নিহত ব্যক্তির পরিচয় এখনো নিশ্চিত হওয়ায় যায়নি। মরদেহ ময়নাতদন্তের জন্য মর্গে পাঠিয়েছে পুলিশ।









Leave a reply