‘ঘুমন্ত অবস্থায়’ গুহার ভেতর থেকে কিশোরদের বের করা হয়

|

থাইল্যান্ডের অভিশপ্ত গিরিগুহা থেকে বের হয়ে এখন হাসপাতালে সময় কাটছে ১২ কিশোর ফুটবলার ও তাদের কোচের। উদ্ধারের পর আজ বুধবার প্রথম তাদের ছবি ও ভিডিও প্রকাশ করা হয়েছে। তাতে দেখা যাচ্ছে, হাসপাতালে নার্সদের সাথে গল্প করছে তারা এবং খাচ্ছে। হাসতেও দেখা গেছে কিশোরদেরকে।

চিকিৎসকরা বলেছেন, তাদের ধারণার চেয়েও ভালো শারিরীক ও মানসিক অবস্থায় আছে তারা। এদিকে উদ্ধার অভিযানে অংশ নেয়া থাই নেভি সিলস এর একজন সদস্য এই প্রথম অভিযান সম্পর্কে কিছু তথ্য গণমাধ্যমকে জানিয়েছেন।

কমান্ডার চৈনান্তা পীরানারংগ নামের ওই দুঃসাহসী ডুবুরি উদ্ধার অভিযানের সর্বশেষ ব্যক্তি হিসেবে গুহা ত্যাগ করেন।

তিনি বলেন, ‘কিশোরদের কয়েকজন বের করে আনার সময় ঘুমন্ত অবস্থায় ছিল। আবার কেউ কেউ দুর্বলতার কারণে ঝিমাচ্ছিল। ওদেরকে স্ট্রেচারে করেই গুহার ভেতর থেকে বের করা হয়েছে। তবে ঘুমন্ত অবস্থায় থাকলেও তাদের স্বাভাবিক শ্বাসপ্রশ্বাস হচ্ছিল। গুহার সংকীর্ণ ও পানির নিচের পথ পাড়ি দেয়ার সময় নির্দিষ্ট জায়গা পর পর ডাক্তাররা অবস্থান করছিলেন। কিছুক্ষণ পর পর তারা বালকদের পালস পরীক্ষা করছিলেন।’

অন্ধকার গুহায় নিজের কাজ সম্পর্কে চৈনান্তা বলেন, ‘আমার কাজ ছিল তাদেরকে অন্যদের হাতে পৌছেঁ দেয়া।’









Leave a reply