সেই গুহাটিকে বানানো হচ্ছে ‘জীবন্ত জাদুঘর’

|

আলোচিত থাম লুয়াং গুহাকে জাদুঘরে পরিণত করা হবে বলে জানিয়েছেন থাইল্যান্ড কর্তৃপক্ষ। ওই গুহায় ১২ জন কিশোর ফুটবলার ও তাদের কোচ আটকা পড়েন। খুঁজে পাওয়ার পর শ্বাসরুদ্ধকর অভিযানের মাধ্যমে তাদের উদ্ধার করা হয়। এ ঘটনা সারা বিশ্বে আলোড়ন সৃষ্টি করে।

কর্তৃপক্ষ জানিয়েছেন, উদ্ধার তৎপরতার অপ্রকাশিত দৃশ্যগুলো জাদুঘরে প্রদর্শন করা হবে। তারা আশা করছেন, এটি থাইল্যান্ডের সবচেয়ে আকষর্ণীয় পর্যটন স্থানে পরিণত হবে।

এছাড়া, এ ঘটনাকে কেন্দ্র করে কমপক্ষে দুইটি প্রযোজনা সংস্থা চলচ্চিত্র বানাতে উদ্যোগী হয়েছেন। উদ্ধার তৎপরতার শুরু থেকেই অবস্থান করছে মার্কিন চলচ্চিত্র নির্মাতা প্রতিষ্ঠান পিওর ফ্লিক্স।

এদিকে, উদ্ধার হওয়া ফটবলার ও তাদের কোচ সুস্থ আছেন বলে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে। তবে সংক্রমণের ঝুঁকিতে থাকায় তাদের প্রায় সপ্তাহখানেক হাসপাতালে থাকতে হবে।

থাই নেভি সিল উদ্ধার কাজের কিছু ফুটেজ প্রকাশ করেছে। সেখানে আটকেপড়া ফুটবল টিমকে উদ্ধারের বেশ কিছু দুর্লভ ছবি দেখা গেছে।

থাম লুয়াং গুহা থাইল্যান্ডের বড় গুহাগুলোর মধ্যে অন্যতম। চিয়াং রাই প্রদেশের মিয়ানমার বর্ডারের কাছে মেই সেই শহরে গুহাটি অবস্থিত। এর চারপাশ পর্বত দ্বারা বেষ্টিত। তবে এই এলাকায় পর্যটকদের জন্য সুযোগ সুবিধা অনেক কম।

চিয়াং রাই প্রদেশের সাবেক গভর্নর ও উদ্ধার মিশনের প্রধান নারাংসাক অসোতানাকর্ন বলেন, থাম লুয়াংসহ এ এলাকা হবে জীবন্ত জাদুঘর। যেখানে ফুটবলারদের উদ্ধার কাজের দুর্লভ বিষয়গুলো দেখানো হবে।

প্রধানমন্ত্রী প্রায়ূথ চান-ওচা দর্শনার্থীদের জন্য গুহার ভেতরে ও বাইরে নিরাপত্তা থাকবে বলে জানান। তবে জাদুঘরের কার্যক্রম বর্ষাকালে বাধাগ্রস্থ হবে। কারণ এই সময় ভারি বৃষ্টিপাতের ফলে গুহাটি পানিতে প্লাবিত হয়।

যমুনা অনলাইন: এফএম/টিএফ









Leave a reply