‘আসামির হাত খুব চিকন, হাতকড়া খুলে পালিয়েছে’

|

কামাল হোসাইন, নেত্রকোণা

নেত্রকোণায় কোর্ট পুলিশের কাছ থেকে মিলন মিয়া (৩২) নামে হত্যা মামলার এক আসামি পালিয়ে গেছেন। রোববার বেলা ১১টার দিকে শহরের কুড়পাড় এলাকায় জেলা জজ আদালত প্রাঙ্গণ থেকে হাতকড়া খুলে তিনি পালিয়ে যান। এ ঘটনায় এটিএসআই খায়রুল সহ আট পুলিশ সদস্যকে প্রত্যাহার করা হয়েছে।

মিলন মিয়ার বাড়ি বারহাট্টা উপজেলার কালিকা গ্রামে। তিনি ওই গ্রামের লুৎফর রহমানের ছেলে। রোববার তাকে কারাগার থেকে আদালতে হাজিরার জন্য নিয়ে যাওয়া হয়েছিল।

কারাগার ও কোর্ট পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, রোববার বেলা ১১ টার দিকে হত্যা, মারামারি, মাদক, নারী ও শিশু নির্যাতনসহ অন্যান্য মামলার ৪৮ জন আসামিকে  হাজিরার জন্য আদালতে নিয়ে যায়। এর মধ্যে হত্যা মামলার আসামি মিলন মিয়াকে জেলা ও দায়রা জজ কেএম রাশেদুজ্জামান রাজার আদালতে হাজির করার কথা ছিল। কিন্তু আদালত প্রাঙ্গণে যাওয়ার পর মিলন মিয়া পুলিশের কাছ হাতকড়া খুলে কৌশলে দৌড়ে পালিয়ে যান।

নেত্রকোণা কারাগারের জেল সুপার আব্দুল কুদ্দুছ ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে জানান, ‘কোর্ট পুলিশের কাছ থেকে মিলন মিয়া নামে এক হত্যা মামলার আসামি পালিয়ে যাওয়ার কথা শুনেছি। এর বেশি কিছু এখনো জানিনা।’

কোর্ট পরিদর্শক জিয়াউর রহমান জানান, ‘আসামির হাতটি খুব চিকন ছিল। তাই হাতকড়া খুলে পালিয়ে গেছে। তাকে গ্রেফতারের জন্য অভিযান চলছে।’

নেত্রকোণার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার এসএম আশলাফুল আলম জানান,এ ঘটনায় এএসআই খায়রুল সহ আট পুলিশ সদস্যকে প্রত্যাহার করা হয়েছে। পলাতক আসামি কে গ্রেফতার করার জোর চেষ্টা চলছে।

এ বিষয়ে পুলিশ সুপার জয়দেব চৌধুরী জানান, একটি তদন্ত কমিটি ঘটনা করা হয়েছে। পলাতক আসামির বিরুদ্ধে আরো একটি মামলা করা হচ্ছে। এই নিয়ে গত এক বছরে নেত্রকোণায় পুলিশের কাছ থেকে ছয় আসামি পালানোর ঘটনা ঘটেছে।









Leave a reply