একা মেয়ে মানেই যৌনকর্মী!

|

প্রতীকি ছবি

‘স্মল গার্ল, বিগ গড’। নাইজেরিয়ার একটি প্রচলিত প্রবাদ। যার অর্থ, যারা সিঙ্গেল মেয়ে তাদের অর্থের যোগানদাতা থাকে। তারা বেশির ভাগই হয় বৃদ্ধ লোক। এই প্রবাদে ফুটে উঠেছে, নাইজেরিয়ার সিঙ্গেল মেয়েদের জীবন যুদ্ধের কাহিনী।

সেখানে সিঙ্গেল মেয়ে মানেই যৌনকর্মী- এমনটাই বিশ্বাস করেন বাড়ির মালিকরা। যার কারণে নাইজেরিয়ায় একা মেয়েদের পক্ষে বাড়ি ভাড়া পাওয়া অনেক সময় কঠিন হয়ে যায়। একই সঙ্গে বাড়ির মালিকরা পুরুষদের কাছে বাড়ি ভাড়া দিতে বেশি স্বাচ্ছন্দ্য বোধ করেন। কারণ তারা মনে করেন, পুরুষদের কাছে অনেক টাকা রয়েছে। এ খবর দিয়েছে বিবিসি।

ওই প্রতিবেদনে বলা হয়, পেশাজীবনে সফল ৩০ বছর বয়সী অনুফানমিলোলা পাঁচ মাস ধরে বাসা খুঁজে না পেয়ে অবশেষে ঠাঁই নিয়েছেন এক বান্ধবীর বাসার সোফা। অনুফানমিলোলা একা হওয়ার কারণে তাকে বাসা ভাড়া দিচ্ছেন না বাড়ির মালিকরা। তিনি বলেন, বাড়ি ভাড়ার জন্য গেলে আমাকে প্রথমে শুনতে হয়, আমি কি বিবাহিত? আমি বলি, না। তারপর প্রশ্ন করা হয়, কেন আমি বিয়ে করিনি। আমি বিভ্রান্ত হই। একটা বাসা ভাড়া নেয়ার সাথে বিয়ের কী সম্পর্ক?

অনুফানমিলোলা অভিযোগ করে বলেন, ৯৯% বাড়ির মালিক যাদের সাথে আমি সাক্ষাত করেছি, তারা কেউ আমাকে বাসা ভাড়া দেয়নি। কারণ আমি একা নারী। অনেক মালিক এবং এজেন্ট আমাকে বলেছে তুমি কি তোমার পুরুষ-সঙ্গী বা স্বামীকে আনতে পারবে? এই ধরনের অ্যাপার্টমেন্টে আমরাই চাই না কোনো পুরুষ আসুক।

প্রতিবেদনে কোলম্যান ওয়াফোর নামে এক বাড়িওয়ালার বক্তব্য তুলে ধরা হয়। সেখানে তিনি বলেন, তিনি এক্ষেত্রে বৈষম্য করেন না। কিন্তু দেখা গেছে, তার বেশির ভাগ ভাড়াটিয়া এবং ক্রেতাই পুরুষ।

এর কারণ জানতে চাইলে তিনি বলেন, বেশির ভাগ একলা মেয়েরা কোনো কাজ করে না। এখানে মেয়েদের চেয়ে ছেলেদের জন্য কাজের সুযোগ বেশি। এটাই এখানকার পরিস্থিতি।

যমুনা অনলাইন:এফএম









Leave a reply