এক মাসের ছুটি চেয়েছেন প্রধান বিচারপতি

|

প্রধান বিচারপতি সুরেন্দ্র কুমার সিনহা এক মাসের জন্য ছুটি চেয়ে রাষ্ট্রপতি মো. আব্দুল হামিদের কাছে আবেদন করেছেন বলে জানিয়েছেন অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম। আজ সোমবার বিকালে সাংবাদিকদের এ তথ্য জানান অ্যাটর্নি জেনারেল।

সরকার ঘোষিত ছুটি এবং সুপ্রিম কোর্টের অবকাশকালীন ছুটি শেষে দেশের সর্বোচ্চ আদালত সুপ্রিম কোর্ট খুলছে আগামীকাল মঙ্গলবার। গত ২৭ আগস্ট থেকে দীর্ঘ এক মাসেরও বেশি সময় পর আদালত খোলার আগেই প্রধান বিচারপতি ছুটি চাইলেন।

অ্যাটর্নি জেনারেল আরও জানান, কাল থেকে আপিল বিভাগে বসছেন না প্রধান বিচারপতি সুরেন্দ্র কুমার সিনহা।

আইনমন্ত্রী আনিসুল হক বলেছেন, রাষ্ট্রপতির কাছে প্রধান বিচারপতি এক মাসের ছুটি চেয়েছেন। ছুটির আবেদনে কাল থেকেই তিনি ছুটিতে যেতে ইচ্ছার কথা জানিয়েছেন।

সংবিধানের ষোড়শ সংশোধনী অবৈধ ঘোষণার পূর্ণাঙ্গ রায় ১ আগস্ট প্রকাশিত হয়। ওই দিনই পূর্ণাঙ্গ রায়টি সুপ্রিম কোর্টের ওয়েবসাইটে দেওয়া হয়। রায় প্রকাশের পর এ নিয়ে সরকার ও ক্ষমতাসীন দল আওয়ামী লীগ সংক্ষুব্ধ হয়। বিশেষ করে প্রধান বিচারপতি সুরেন্দ্র কুমার সিনহার বিভিন্ন পর্যবেক্ষণ নিয়ে ক্ষোভ ও অসন্তোষ প্রকাশ করে আসছিলেন মন্ত্রী, দলীয় নেতা ও সরকারপন্থী আইনজীবীরা।

তারা প্রধান বিচারপতির পদত্যাগের দাবিও তোলেন। ১৪ সেপ্টেম্বর সংবিধানের ষোড়শ সংশোধনী বাতিলের রায় এবং তার কিছু পর্যবেক্ষণের বিষয়ে আইনি পদক্ষেপ নিতে জাতীয় সংসদে একটি প্রস্তাব গ্রহণ করা হয়। বিচারিক সিদ্ধান্তের বিষয়ে সংসদে ওই দিন প্রায় পাঁচ ঘণ্টা আলোচনা হয়, যাতে সংসদ নেতা ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাসহ ১৮ জন সংসদ সদস্য অংশ নেন।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন, আদালত তার এখতিয়ারের বাইরে গিয়ে সংসদে পাস হওয়া সংবিধানের সংশোধনী বাতিল করেছে।২৭ আগস্ট থেকে ২ অক্টোবর পর্যন্ত সুপ্রিম কোর্টের অবকাশকালীন ছুটি ছিল। কাল থেকে নিয়মিত আদালত বসছে। এর মধ্যে প্রধান বিচারপতি ৮ সেপ্টেম্বর থেকে ২২ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত বিদেশ সফরে ছিলেন।









Leave a reply