১০ বছর পর সাফ শিরোপার দেখা পেলো মালদ্বীপ

|

টস ভাগ্যে সেমিফাইনালে উঠা মালদ্বীপের হাতেই উঠেছে সাফ শ্রেষ্ঠত্বের শিরোপা। ফাইনালে শক্তিশালী ভারতকে ২-১ গোলে হারিয়েছে মালদ্বীপ। ইব্রাহিম মাহুদি হোসেন আর আলী ফাসির গোলেই সাফে নিজেদের দ্বিতীয় শিরোপা ঘরে তুললো দ্বীপ দেশটি।

এর আগে, ২০০৮ সালে প্রথমবারের মতো সাফের শিরোপা ঘরে তুলেছিল মালদ্বীপ। ১০ বছর পর আবারও উপমহাদেশের শ্রেষ্ঠত্বের তকমা। তাইতো তাদের উদযাপনটাও হলো বাধভাঙ্গা। সেই সাথে ভারতের কোচ কনস্ট্যানটাইনের কাছে আগের ২ বার হারলেও এবার ফুল মার্কস পেয়ে উদযাপনের মধ্যমণি দেশটির কোচ পিটার সিগ্রেট।

আসরে মাত্র ১ জয় নিয়ে ফাইনালের মঞ্চে উঠা মালদ্বীপ যেন জ্বলে উঠলো ম্যাচের শুরু থেকেই। ১৯ মিনিটে প্রথম সাফল্য আসে দ্বীপ দেশটির। মাঝমাঠ থেকে নাইজ হাসেনের বাড়ানো বল থেকে ডিবক্সে ঢুকে গোল করেন ফরোয়ার্ড ইব্রাহিম মাহুদি হোসেন।

৩১ মিনিটে মানভীর সিংয়ের লক্ষ্যভ্রষ্ট শটে এগিয়ে যাওয়া হয়নি ফেভারিট ভারতের। ৩৪ মিনিটে ফারুক কাশেমের শটও চলে যায় গোলপোস্টের বাইরে দিয়ে।

৪২ মিনিটে ডিবক্সের বাইরে থেকে নেয়া আলী ফাসিরের ফ্রি-কিক অল্পের জন্য জালের দেখা না পেলে লিড দ্বিগুণ করা হয়নি দ্বীপ দেশটির।

দ্বিতীয়ার্ধের শুরুতে মানভীর সিংয়ের হেড লক্ষ্যভ্রষ্ট হলে, হতাশা আরও বাড়ে ডিফেন্ডিং চ্যাম্পিয়নদের। ৬৬ মিনিটে হামজা আহমেদের থ্রু পাস থেকে আলী ফাসিরের নিখুঁত ফিনিশিংয়ে ২-০ এর লিড পায় মালদ্বীপ।

এরপর ম্যাচে ফিরতে আপ্রাণ চেষ্টা করা ভারত একটি গোল শোধ দেয় অতিরিক্ত সময়ে। সুপার সাব সুমিত পাসির গোল পরাজয়ের ব্যবধান কমালেও শিরোপা ধরে রাখতে পারেনি আসরের ৭ বারের চ্যাম্পিয়নরা। ৩ গোল করে আসরের সর্বোচ্চ স্কোরার ভারতের মানভীর সিং। আর আসরের সেরা ফুটবলার হয়েছেন মালদ্বীপের ফয়সাল মাহমুদ।

যমুনা অনলাইন: টিএফ









Leave a reply