দাপ্তরিক কাজে রোহিঙ্গাদের পরিচয় ‘বাস্তুচ্যুত মিয়ানমারের নাগরিক’

|

মিয়ানমারের সরকার ও সেনাবাহিনীর চালানো হত্যাযজ্ঞের মুখে রাখাইন থেকে পালিয়ে আসা রোহিঙ্গা জনগোষ্ঠির পরিচয়ের ক্ষেত্রে বাংলাদেশ সরকার দাপ্তরিকভাবে ‘রোহিঙ্গা’ শব্দটি ব্যবহার করবে না। এর পরিবর্তে তাদের পরিচয় বলা হবে ‘বলপূর্বক বাস্তুচ্যুত মিয়ানমারের নাগরিক’।

পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় থেকে এমন নির্দেশনা দেয়া হয়েছে বলে আজ বৃহস্পতিবার দুপুরে এক ব্রিফিংয়ে ত্রাণ সচিব মো: শাহ্ কামাল জানিয়েছেন।

এসময় সচিব আরও জানান, রোহিঙ্গাদের অস্থায়ী পুর্নবাসনের জন্য উখিয়ার কুতুপালং এলাকায় নতুন করে আরও এক হাজার একর জমি বরাদ্দ করা হয়েছে। এর আগে বরাদ্দ ছিল ২ হাজার একর।

প্রসঙ্গত, মিয়ানমার সরকার ‘রোহিঙ্গা’ শব্দটি ব্যবহার করে না। সরকারি ভাষ্যে এই জনগোষ্ঠিকে ‘বাঙালি’ বা ‘বাংলাদেশি মুসলমান’ বলে প্রচার করা হয়। তবে সম্প্রতি বাংলাদেশ সরকারের পক্ষ থেকে মিয়ানমারের এই অবস্থানের প্রতিবাদ জানানো হয়েছে।









Leave a reply