চলচ্চিত্রে সংগীত পরিচালক ও প্লেব্যাক শিল্পী আইয়ুব বাচ্চু

|

ব্যান্ড সংগীতের কিংবদন্তি শিল্পী আইয়ুব বাচ্চু শুধু ব্যান্ড জগতেই দাপিয়ে বেড়াননি, ঢাকাই চলচ্চিত্রে প্লেব্যাক শিল্পী হিসেবেও তুলেছিলেন আলোড়ন।

বাংলা চলচ্চিত্রের গতানুগতিক ধারার গানগুলোর মধ্যে তিনি এনে দিয়েছিলেন তারুণ্যের ছোঁয়া।

সিনেমার গান তার গিটারের বিদ্যুতায়নে দেখেছিল এক নতুন দিগন্ত। ব্যান্ড গানের সঙ্গে যুক্ত করেছিলেন ঢাকাই চলচ্চিত্রকে।

‘লুটতরাজ’ ছবির ‘অনন্ত প্রেম তুমি দাও আমাকে’ তার বাংলা ছবির অন্যতম একটি জনপ্রিয় গান। এ গানটি দিয়েই প্রথম চলচ্চিত্রে প্লেব্যাক শিল্পী হিসেবে নিজেকে প্রকাশ করেন আইয়ুব বাচ্চু।

প্লেব্যাক শিল্পীর সাথে সাথে সঙ্গীত পরিচালক ও  ছিলেন আইয়ুব বাচ্চু। মোস্তাফা সরয়ার ফারুকীর  ‘ব্যাচেলর’ ও ‘টেলিভিশন’ সংগীত পরিচালক ছিলেন তিনি। ‘ব্যাচেলর’ ছবিতে আইয়ুব বাচ্চু নিজের সঙ্গীত পরিচালনায় ‘আমি তো প্রেমে পড়ি নি’ গানটি গেয়েছিলেন তিনি।  ‘টেলিভিশন’ ছবিটির ব্যাকগ্রাউন্ড মিউজিক পাশাপাশি দু’টি গানের সুরের কাজ করেন আইয়ুব বাচ্চু।

প্লেব্যাক সংগীত শিল্পী হিসেবে তার সব গানই পেয়েছে দর্শকপ্রিয়তা।  তার  ‘আম্মাজান’ গানটি বাংলা সিনেমার ইতিহাসের সবচেয়ে জনপ্রিয় গানগুলোর একটি ধরা হয়।

এ ছাড়া বাংলা চলচ্চিত্রে গাওয়া আইয়ুব বাচ্চুর উল্লেখযোগ্য গান হল – ‘সাগরিকা’ ছবির ‘আকাশ ছুঁয়েছে মাটিকে’, ‘ব্যাচেলর’ ছবির ‘আমি তো প্রেমে পড়িনি প্রেম আমার উপরে পড়েছে’, আড়ালে কেউ কলকাঠি নাড়ছে। ‘লাল বাদশা’ ছবির ‘আরো আগে কেন তুমি এলে না’, ‘তেজী’ ছবিতে ‘এই জগত সংসারে তুমি এমনই একজন’, ‘আম্মাজান’ ছবির  ‘স্বামী আর স্ত্রী’, ‘তোমার আমার প্রেম এক জনমের নই’, ‘মেয়েরা মাস্তান’ ছবিতে ‘ঘড়ির কাঁটা থেমে থাক’, ‘চোরাবালি’ ছবিতে ‘ভুলে গেছি জুতোটার ফিতেটাও বাঁধতে’ শিরোনামের গান। ‘অনন্ত প্রেম তুমি দাও আমাকে’, ‘আকাশ ছুঁয়েছে মাটিকে’, ‘আমি দিওয়ানা দিওয়ানা’।

 

 









Leave a reply