‘প্রয়োজন হলে ইইউ’র সাথে সম্পর্কোন্নয়নের সময়সীমা বাড়াবে ব্রিটেন’

|

প্রয়োজন হলে ইউরোপীয় ইউনিয়নের সাথে ব্রেক্সিট পরবর্তী সম্পর্কোন্নয়নের সময়সীমা বাড়াবে ব্রিটেন। রোববার এক সাক্ষাৎকারে এ কথা বলেছেন দেশটির ব্রেক্সিট মন্ত্রী ডমিনিক রাব।

আয়ারল্যান্ড কঠোর অবস্থানে থাকলেও লন্ডন এ বিষয়ে যথেষ্ট উদার বলে দাবি করেন তিনি। সম্প্রতি আয়ার‍ল্যান্ডের অনমনীয়তার কারণে থমকে যায় ব্রিটেন-ইইউ আলোচনা।

২০২০ সালের ৩১ ডিসেম্বর পর্যন্ত ছিলো দু’পক্ষের মাঝে চুক্তি সম্পাদনের শেষ সময়সীমা। ইইউ-ব্রিটেন বাণিজ্যিক ও পারস্পরিক সম্পর্ক স্থিতিশীল অবস্থায় নিতে ঘোষণা করা হয়েছিল ২১ মাসের ‘ট্রানজিশন পিরিয়ড’।

তবে চুক্তি বাস্তবায়নের খাতিরে সম্প্রতি এই সময়সীমা বাড়ানোর প্রস্তাব দেয় ইইউ। ২০১৯ সালের ২৯ মার্চের মধ্যে, ইউরোপীয় ইউনিয়ন থেকে আনুষ্ঠানিকভাবে বিচ্ছিন্ন হওয়ার কথা যুক্তরাজ্যের।

ছয় মাসেরও কম সময় হাতে থাকলেও ইউরোপীয় ইউনিয়ন থেকে বেরিয়ে যাবার আগে এখনও কার্যকরী চুক্তিতে আসতে পারেনি থেরেসা মে’র প্রশাসন।









Leave a reply