‘ব্লু হোয়েল’ খেলা বন্ধে ব্যবস্থা নিচ্ছে বিটিআরসি

|

ব্লু হোয়েল গেম রহস্য নিয়ে তদন্ত করে প্রয়োজনে অনলাইনে এই খেলা বন্ধে ব্যবস্থা নিতে বিটিআরসিকে নির্দেশ দিয়েছে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়। আজ সোমবার স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান এ তথ্য জানান।
ব্লু হোয়েল নামক রহস্যজনক গেমটি খেলে তরুণরা আত্মহত্যায় প্ররোচিত হচ্ছে এমন সংবাদের প্রেক্ষিতে বিটিআরসি’কে পদক্ষেপ নিতে নিদের্শ দিল সরকার।
বিশ্বের বিভিন্ন দেশে ব্লু হোয়েল নিয়ে আগে থেকেই আতঙ্ক ছিল। কিছু সংবাদমাধ্যমের দাবি, এ পর্যন্ত শতাধিক তরুণ-তরুণী এই গেম খেলে আত্মহত্যায় প্ররোচিত হয়েছে।  গত কয়েক দিন ধরে বাংলাদেশেও খবর রটায় যে, রাজধানীর হলিক্রস স্কুলের এক ছাত্রী গেমটি খেলে আত্মাহুতি দিয়েছে। তবে পুলিশ এ দাবির কোনো সত্যতা পায়নি বলে জানিয়েছে।

ইন্টারনেটভিত্তিক ব্লু হোয়েল গেমটি তৈরি ২০১৩ সালে। এটি তৈরি করেন রাশিয়ার বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ঝরে পড়া মনোবিজ্ঞানের শিক্ষার্থী ফিলিপ বুদেকিন।

গেমটি খেলে রাশিয়ায় অন্তত ১৬ কিশোর-কিশোরী আত্মহত্যা করেছে এমন অভিযোগে গ্রেফতার করা হয় বুদেকিনকে। দোষ স্বীকার করে তিনি বলেন, যেসব ছেলেমেয়ে সমাজে অপ্রয়োজনীয় তাদেরকে আত্মহননের পথে ঠেলে দিয়ে ঝঞ্জাল সাফ করাই তার উদ্দেশ্য!

গেমটিতে লেভেল ৫০টি। একের পর এক নির্দেশনা আসে ভয়ঙ্কর থেকে ভয়ঙ্করতম। নির্দেশনার মধ্যে প্রথমে যেমন থাকে অন্ধকার ঘরে একা হরর মুভি দেখা, শেষের দিকে ব্যক্তিগত গোপনীয় তথ্য ফাঁসের হুমকি দিয়ে বাধ্য করা হয় গেমের শেষপর্যন্ত যেতে। পঞ্চাশতম লেভেলেই বাধ্য করা হয় আত্মহত্যায়।









Leave a reply