দারিদ্র তাকে স্কুলে যেতে দেয়নি, এখন প্রতিষ্ঠা করেছেন ২টি স্কুল

|

যে বয়সে স্কুল যাওয়ার কথা ছিল, সে বয়সেই তাকে মনোযোগ দিতে হয়েছিল খাবার জোগানের কাজে। সংসারের দায়ভার তাকে স্কুল যেতে দেয়নি। আর সেই তাড়না থেকেই তিনি গড়েছেন দুটি স্কুল আর একটি অনাথ আশ্রম।

তাও শুধু ট্যাক্সি চালিয়ে তিনি এমন বৃহৎ সামাজিক কর্মটি করে যাচ্ছেন। তার নাম গাজী জালালউদ্দিন।

এবার সে স্কুলকে কলেজে রূপদান করতে চান তিনি। তার জন্য প্রয়োজন অনেক টাকা। তাই দ্বারস্থ হন ভারতের জনপ্রিয় শো কৌন বানেগা ক্রোড়পতি অনুষ্ঠানের।

সে অনুষ্ঠানে হট সিটে তার পাশে বসেছিলেন বলিউড অভিনেতা আমির খান। সামনে অনুষ্ঠান সঞ্চালক বিগ বি অমিতাভ বচ্চন।

সেখানে শোনা গেল অনন্য সাধারণ এই মানুষের জীবন গল্প। নিজ হাতে গড়া স্কুল ও আশ্রমের জন্য দিনরাত ট্যাক্সি চালিয়ে অক্লান্ত শ্রম দিয়ে যাচ্ছেন গাজী জালালউদ্দিন। থেমে নেই তার স্বপ্ন। এবার একটি কলেজ স্থাপন করতেই হবে তাকে।

এ বিষয়ে জালালউদ্দিন নিজের উদাহরণ দেখিয়ে বলেন, কোনো শৈশবকে শিক্ষার আলো থেকে দূরে রাখতে চান না তিনি।

প্রবল দারিদ্র্যতা তার পড়াশোনা ক্লাস থ্রি, এর পর আর এগোতে পারেননি। পড়াশোনা বন্ধ করে মহানগরের ফুটপাতে শিশু জালালউদ্দিনকে ভিক্ষা করে কোনোমতে একবেলার খাবার জোগাড় করতে হতো। অথচ ডাক্তার হওয়ার বাসনা ছিল তার।

তিনি চান না যে, অর্থাভাবে আর কোনো শিশু পড়ালেখা ছেড়ে রাস্তায় নামুক। অদম্য এ সমাজকর্মীর পাশে এসে দাঁড়িয়েছে ভারতীয় জনপ্রিয় অনুষ্ঠান কেবিসি। যেখানে প্রশ্নের সঠিক উত্তর দিলে পুরস্কার হিসেবে টাকা মেলে।

সে টাকায় এবার কলেজ বানাতে চান জালালউদ্দিন।









Leave a reply