প্রেমিকের সাথে গৃহবধূর পলায়ন, স্বামীর বিরুদ্ধে মামলা

|

ফেনী প্রতিনিধি:

ফেনীর ফুলগাজী উপজেলার ইসলামপুর গ্রামের ইসমাইল হোসেন মজুমদার রিপনের স্ত্রী বিবি মরিয়ম জান্নাত (২১) পালিয়ে যান প্রেমিকের সাথে। কিন্তু গৃহবধূ জান্নাতের মা গত ১৭ অক্টোবর স্বামী ইসমাইল হোসেন রিপনের বিরুদ্ধে ১৫ লক্ষ টাকা যৌতুক না পেয়ে থানায় অপহরণ মামলা করেন। শুক্রবার সকালে জান্নাতকে উদ্ধার করে থানায় নিয়ে আসে পুলিশ। পরেই জানা যায় প্রকৃত ঘটনা।

অপহরণ মামলায় আসামি করা হয় শ্বশুর হাজী আবদুস সোবহান মজুমদার, শাশুড়ি সামছুন নাহার ও নিকটতম আত্মীয় মো. মহিউদ্দিন মজুমদার সোহাগ। এ মামলায় সোহাগ বর্তমানে জেলে। অন্যরা হাইকোর্ট থেকে জামিনে রয়েছেন। অথচ যাকে হত্যা করে লাশ গুমের অভিযোগ সেই বিবি মরিয়ম জান্নাত চাঁদপুর জেলার কচুয়া উপজেলায় তার ফেসবুক প্রেমিক আবিরের ঘরে দিনযাপন করছেন। ফুলগাজী থানার এসআই আনবিক চাকমার নেতৃত্বে পুলিশ জান্নাতের মায়ের মোবাইল নম্বর ট্রেকিং জান্নাতকে আটক করে।

পরিবার ও পুলিশ সূত্রে জানা যায়, ছাগলনাইয়া থানার উত্তর সতের গ্রামের মরহুম মোশাররফ হোসেনের বড় মেয়ে বিবি মরিয়ম জান্নাতের সাথে পারিবারিকভাবে ২০১৫ সালের ২৩ জুলাই ৮ লক্ষ টাকা দেন মোহরে ফুলগাজী উপজেলার ইসলামপুর গ্রামের হাজী আবদুস সোবহানের ছেলে ব্যবসায়ী ইসমাইল হোসেন মজুমদার রিপনের সাথে বিয়ে হয়। জান্নাত গত ৮ অক্টোবর বিকালে ১৬ লক্ষ টাকা, ২২ ভরি স্বর্ণালংকার নিয়ে পালিয়ে যায়। অনেক খোঁজাখুঁজির পর না পেয়ে রিপনের পরিবার ফেনীর পুলিশ সুপারের শরণাপন্ন হয়। পুলিশ সুপারের কার্যালয়ে এএসআই মোঃ আবদুল মতিন উভয়কে ২১ অক্টোবর সকাল ১০ টায় হাজির থাকার অনুরোধ করে লিখিত নির্দেশ দেন। কিন্তু জান্নাতের পরিবার হাজির না হয়ে উল্টো ১৭ অক্টোবর হত্যা করে লাশ গুমের অভিযোগ এনে ফুলগাজী থানায় মামলা দায়ের করে।

এ ব্যাপারে ফুলগাজী থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ কুতুব উদ্দিন জানান, পুলিশ জান্নাতকে উদ্ধার করেছে। আদালতে জবানবন্দী শেষে পরবর্তী ব্যবস্থা নেয়া হবে। জান্নাতের মায়ের করা মামলায় বর্তমানে একজন জেল হাজতে রয়েছে।









Leave a reply