বাগেরহাটে ৪টি আসনে আওয়ামী লীগ, বিএনপির এমপি হতে চান ৬৮ নেতা

|

বাগেরহাট প্রতিনিধি
বাগেরহাটের ৪টি আসনে বড় দুটি দল আওয়ামী লীগ ও বিএনপি ছাড়াও অন্য দল থেকে একাধিক নেতা একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে অংশগ্রহণের আশা নিয়ে দলীয় মনোনয়ন কিনেছেন। আওয়ামী লীগের দলীয় মনোনয়ন কিনেছেন ২৯জন। বিএনপির দলীয় মনোনয়ন কিনেছেন ৩১জন। জাতীয় পার্টি ০২জন । জামায়াতে ইসলামী ০২ জন। ইসলামী শাসনতন্ত্রের আন্দোলনের ৪ জন। দলীয় মনোনয়ন কেনা ও চুড়ান্ত ভাবে দলীয় প্রার্থী মনোনীত হতে বাগেরহাট জেলা ও উপজেলার অসংখ্য নেতারা এখন রাজধানী ঢাকায় অবস্থান করছেন।

লবিংয়ে ব্যস্ত সময় পার করছেন তারা। প্রত্যেক নেতার সমর্থকেরা নিজ সমর্থিত প্রাথীর দলীয় মনোনয়ন চুড়ান্ত বলে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে নেতার ছবি সম্বলিত নানা ধরনের প্রচারনায় গরম করে রেখেছেন বেশ কয়েকদিন ধরে।

ইতিমধ্যে আওয়ামী লীগের দলীয় মনোনয়ন সংগ্রহ করছেন প্রবীন আওয়ামী লীগের বেশ কয়েক নেতা। এছাড়াও দেশবরেন্য অনেক তরুন আলোচিত নেতাও প্রার্থী হতে দলীয় মনোনয়ন সংগ্রহ করেছেন এবার। পাশাপাশি বিএনপির কয়েক ডজন নেতা দলীয় মনোনয়ন কিনেছেন। বসে নেই ২০ দলের শরীক জামায়াতে ইসলামীও ইতিমধ্যে বাগেরহাটের ৪টি আসনের দুইটিতে স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে জেলা রির্টানিং অফিসারের কার্যালয় থেকে মনোনয়ন সংগ্রহ করেছে। তবে শেষ মুহুর্তে কে ঢাকা থেকে চুড়ান্ত প্রার্থী মনোনীত হয়ে আসে সেই দিকেই যেন নেতা কর্মীসহ সাধারণ ভোটাররা তাকিয়ে আছে। এই বিপুল আগ্রহের পাশাপাশি রয়েছে উৎকন্ঠাও।

বাগেরহাট ১ আসন: চিতলমারী- ফকিরহাট-মোল্লাহাট উপজেলা নিয়ে গঠিত বাগেরহাট ১ আসন থেকে একমাত্র আওয়ামী লীগের দলীয় মনোনয়ন সংগ্রহ করেছেন বঙ্গবন্ধুর ভ্রাতুস্পুত্র বর্তমান এমপি শেখ হেলাল উদ্দীন। এছাড়া বিএনপির পক্ষে মনোনয়ন কিনেছেন জেলা বিএনপির সিনিয়র সহ সভাপতি শেখ ওয়াহিদুজ্জামান দিপু, চিতলমারী উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান ও মহিলা দলের নেত্রী রুনা গাজী, জাসাস কেন্দ্রীয় কমিটির সাংগঠনিক সম্পাদক মঞ্জুর মোর্শেদ স্বপন, বিএনপি নেতা ইঞ্জিনিয়ার মাসুদ রানা, ঢাকার সিটির বিএনপি নেতা রবিউল আলম, ফকিরহাট উপজেলা চেয়ারম্যান বিএনপি সভাপতি শরিফুল কালাম কারিম, আহসান হাবিব ঠান্ডু । জাতীয় পার্টি থেকে মনোনয়ন সংগ্রহ করছেন আল জুবায়ের। ইসলামী শাসনতন্ত্র আন্দোলন থেকে অবসর প্রাপ্ত সেনা সদস্য মো. লিয়াকত আলী।

বাগেরহাট-২ আসন
(বাগেরহাট সদর – কচুয়া উপজেলা নিয়ে গঠিত বাগেরহাট -২ আসন থেকে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন সংগ্রহ করেছেন, বঙ্গবন্ধুর ভ্রাতুস্পুত্র শেখ হেলাল উদ্দিনের একমাত্র ছেলে শেখ সারহান নাসের তন্ময়, বর্তমান এমপি মীর শওকাত আলী বাদশা, তারই ভাবী আওয়ামী লীগ নেত্রী ফরিদা আক্তার বানু লুসি,তারই কন্যা কেন্দ্রীয় যুবলীগ নেত্রী মীর জেনিয়া, জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ন সম্পাদক ও পৌর মেয়র খান হাবিবুর রহমান, পৌর আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ বশিরুল ইসলাম, সদর থানা আওয়ামী লীগের সভাপতি আকতারুজ্জামান বাচ্চু, কচুয়া আওয়ামী লীগ নেতা বক্কর শিকদার,হাসিবুর রহমান, জেলা আওয়ামী লীগ নেতা মাহাবুবুর রহমান মিঠু।

বিএনপির পক্ষে মনোনয়ন সংগ্রহ করেছেন জেলা বিএনপির সভাপতি এম এ সালাম, সহ সভাপতি মনিরুল ইসলাম খান, জেলা বিএনপির সাবেক সাধারণ সম্পাদক এটিএম আকরাম হোসেন তালিম, ব্যারিস্টার জাকির হোসেন, শ্রমিক দলের সভাপতি সরদার লিয়াকত আলী, জেলা যুবদলের সাধারণ সম্পাদক সুজাউদ্দিন মোল্লা সুজন। এছাড়া ইসলামী শাসনতন্ত্র আন্দোলন থেকে মনোনয়ন সংগ্রহ করেছেন জেলা সহ সভাপতি মাষ্টার ইদ্রিস আলী মৃধা।

বাগেরহাট-৩ আসন
রামপাল – মোংলা উপজেলা নিয়ে বাগেরহাট ৩ আসন গঠিত। এই আসন থেকে আওয়ামী লীগের পক্ষে দলীয় মনোনয়ন সংগ্রহ করেছেন খুলনা সিটি কর্পোরেশনের মেয়র তালুকদার আব্দুল খালেকের স্ত্রী বর্তমান এমপি হাবিবুন নাহার তালুকদার, চিত্র নায়ক শাকিল খান, ব্যারিস্টার ওবায়দুর রহমান, শেখ মো. আবু হানিফ,শেখ ইকবাল লতিফ সোহেল, ইব্রাহিম হোসেন, সুনিল কমার বিশ্বাস, শরিফুল হাসান বিথি, ইদ্রিস ইজারাদার ও শেখ নবীরুজ্জামান বাবু। বিএনপির পক্ষে কেন্দ্রী বিএনপি নেতা কৃষিবিধ মো: শামিমুর রহমান, মোংলা পৌর সভার মেয়র ও বিএনপি নেতা জুলফিকার আলী,শেখ হাফিজুর রহমান তুহিন, সুন্দরবন ফাউন্ডেশনের চেয়ারম্যান ড. শেখ ফরিদুল ইসলাম, আয়শা সিদ্দিকা মানি, আব্দুল হালিম খোকন,সরদার ওজিয়ার রহমান,মল্লিক মিজানুর রহমান মজনু,গোলাম সরোয়ার,আব্দুল মান্নান ও মো: মইন উদ্দিন । এই আসনে ২০ দলীয জোটের সদস্য সচিব ও জেলা জামায়াতের নায়েবে আমীর এ্যাডভোকেট শেখ আব্দুল ওয়াদুদ সতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে মনোনয়ন সংগ্রহ করছেন এছাড়া ইসলামী শাসনতন্ত্র আন্দোলনের পক্ষে মাওলানা মো. শাহজালাল সিরাজী।

বাগেরহাট -৪ আসন
শরনখোলা-মোড়েলগজ্ঞ উপজেলা নিয়ে বাগেরহাট ৪ আসন গঠিত। এই আসনে আওয়ামী লীগের পক্ষে দলীয় মনোনয়ন সংগ্রহ করেছেন বর্ষিয়ান নেতা বাগেরহাট জেলা আওয়ামী লীগের দীর্ঘ দিনের সভাপতি বর্তমান এমপি ডা মো: মোজ্জাম্মেল হোসেন, সাবেক কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের সভাপতি এইচ এম বদিউজ্জামান সোহাগ, কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগ নেতা ও মোড়েলজ্ঞ উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি এ্যাডভোকেট আমিরুল আলম মিলন, পুলিশের সাবেক এআইজিপি অধ্যাপক আব্দুর রহিম খান, এ্যাডভোকেট প্রবীর রঞ্জন হালদার, এম আর জামিল হোসাইন, কামাল উদ্দিন আকন, এম এমদাদুল হক, এইচ এম রানা,। বিএনপির পক্ষে মনোনয়ন সংগ্রহ করেছেন জেলা বিএনপির সহসভাপতি কাজী খায়রুজ্জামান শিপন, কেন্দ্রীয় বিএনপি নেতা ড. এবিএম ওবায়দুল ইসলাম, এ্যাডভোকেট ফারজানা নিপা, ড. কাজী মনিরুজ্জামান, শরিফ মোস্তাফা জামাল লিটু ও মনিরুল হক ফরাজী। জাতীয় পার্টির পক্ষে কেন্দ্রীয় নেতা সোমনাথ দে। এছাড়া জামায়াত নেতা বাগেরহাট কারীকারি কলেজের অধ্যক্ষ আব্দুল আলীম স্বতন্ত্র প্রাথী হিসেবে মনোনয়ন সংগ্রহ করেছেন। এছাড়া ইসলামী শাসনতন্ত্র আন্দোলনের পক্ষে মনোনয়ন সংগ্রহ করেছেন মাওলানা আব্দুল মজিদ।









Leave a reply