২৫ বছর নখ কাটেনি ফুলাবাড়ীর অরুন

|

শখ থেকে ভালবাসা। আর সেই ভালবাসাকে চিরন্তন রূপ দিতে ২৫ বছর ধরে আঙ্গুলের নখ কাটা হয়নি। ৩২ বছরের পুরুষ অরুনের হাতের নখের বয়স ২৫ বছর। দিনাজপুরের ফুলবাড়ি উপজেলার উত্তর লক্ষ্মীপুর গ্রামের অরুন সরকারের নখগুলি দেখার জন্য দূর-দূরান্ত থেকে আসে নারী-পুরুষ। অরুন এলাকায় দর্শনীয় স্থান নয় তবে দর্শনীয় পুরুষে পরিণত হয়েছে কেবল নখের কারণে।

১৯৮৪ সালে দিনাজপুরের ফুলবাড়ি উপজেলার উত্তর লক্ষীপুর গ্রামের সরকার বংশে জন্মগ্রহণ করেন অরুন সরকার। তার পিতা লক্ষ্মীপুর উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষক রবীন্দ্রনাথ সরকার। চর্তুথ শ্রেণিতে পড়া অবস্থায় অরুন শখ করে হাতের নখ (স্থানীয় ভাষায় চাড়া) রাখে। তার ভাষায় সামান্য বড় হতেই বড় নখের প্রতি তার ভালবাসা (মায়া) জন্মে যায়। সেই ভালবাসাকে লালন করতে যেয়ে তিনি নখ কাটা বন্ধ করেই দেয়। তারপর দেখতে দেখতে ২৫ বছরে নখগুলি এখন গাছের ডালের মত বড় হয়েছে।

জানা যায়, বৃদ্ধাঙ্গুলি এবং তর্জনীর নখ লম্বায় ২ ইঞ্চি, মধ্যমার ১১ ইঞ্চি, অনামিকার ৯ ইঞ্চি এবং কনিষ্ঠার নখটি লম্বায় ৮ ইঞ্চি।

এদিকে অরুন জানায়, বড় বড় নখ তার কাজের কোন ব্যাঘাত সৃষ্টি করছে না। পেশায় ফটোগ্রাফার অরুনের বাজারে একটি স্টুড়িও দোকান রয়েছে। ছবি তুলছে, কম্পিউটার চালাচ্ছে কোন সমস্যা হচ্ছে না। তার এই নখ দেখতে দূর দূরান্ত থেকে দর্শনার্থি আসে।

অরুন বলেন, শখের নখগুলি এখন গৌরবের বিষয় হয়ে দাঁড়িয়েছে। আর এমন দৃশ্য দেখতে জেলার বিভিন্ন জায়গা থেকে অনেকেই আসছেন। আমারও ভালো লাগে।

তবে শখের এই নখ স্বাস্থ্যের জন্য ক্ষতিকর কিনা  সেব্যাপারে ফুলবাড়ী স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের প্রধান কর্মকর্তা ডা. নুরুল ইসলাম বলেন, দীর্ঘদিন হলে তার এই নখ রাখা স্বাস্থ্যহানির কারণ হতে পারে। তাই এই রকম শখ থেকে বিরত থাকাই ভালো।









Leave a reply