প্রতিপক্ষের ছুরিকাঘাতে যুবলীগ নেতার মৃত্যু

|

রাজশাহী প্রতিনিধি

প্রতিপক্ষের ছুরিকাঘাতে রাজশাহীতে চঞ্চল কুমার নামে এক যুবলীগ নেতা নিহত হয়েছেন। শনিবার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে তাহেরপুর বাজারে ছুরিকাঘাতের ঘটনা ঘটে। বিকালে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়। এ ঘটনায় উত্তেজনা নিরসনে এলাকায় অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন রয়েছে।

এলাকাবাসী জানান, সকালে তাহেরপুর পৌর আওয়ামা লীগের সাধারণ সম্পাদক ও মেয়র আবুল কালাম আজাদ কয়েকজনকে সাথে নিয়ে জামগ্রাম উচ্চ বিদ্যালয়ে বসেছিলেন। সেটি সাংসদ এনামুলের হকের অনুসারী স্কুল শিক্ষক গুলবার রহমান দূর থেকে ভিডিও করছিলেন। বিষয়টি টের পেয়ে কালামের অনুসারীরা গিয়ে তাকে মারধর করে। এ ঘটনা জানাজানি হলে এনামুলের অনুসারীরা ১১ টি হত্যা মামলার আসামি আর্ট বাবুর নেতৃত্বে তাহেরপুর বাজারে আসেন। বাজারে মেয়র কালামের অনুসারী যুবলীগ নেতা চঞ্চল কুমারকে একা পেয়ে ঘিরে ফেলে। চঞ্চলের কোলে থাকা শিশুকে নামিয়ে মারপিট ও ছুরিকাঘাত করে।

স্থানীয়রা উদ্ধার করে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিলে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়।পুলিশ জানায় এঘটনায় তিনজনকে আটক করা হয়েছে।

প্রসঙ্গত, আওয়ামী লীগ থেকে বর্তমান সাংসদ এনামুল হক ও মেয়র আবুল কালামের আজাদ মনোনয়ন চেয়েছিলেন। তবে এনামুল হক পুনরায় মনোনয়ন পান।









Leave a reply