ফরিদপুরের ৪টি আসনে ২১ জনের মনোনয়ন অবৈধ

|

ফরিদপুর প্রতিনিধি
ফরিদপুর জেলার ৪টি আসনের মোট ২১ জন প্রার্থীর মনোনয়ন অবৈধ ঘোষণা করেছেন জেলা রির্টানিং কর্মকর্তা ও জেলা প্রশাসক উম্মে সালমা তানজিয়া।

রবিবার বেলা ১১ টায় জেলা প্রশাসনের সম্মেলন কক্ষে মনোনয়ন যাচাই বাছাই শুরু হয়। প্রথমে ফরিদপুর ১ আসনে যাচাই বাছাইতে মোট ৫ জন প্রার্থীর, ফরিদপুর ২ আসনে ১ জন প্রার্থীর, ৩ আসনে ৫ জন প্রার্থীর ও ফরিদপুর ৪ আসনে ১০ জন প্রার্থীর মনোনয়ন অবৈধ ঘোষণা করা হয়।

ফরিদপুর ০১ঃ এই আসনে ৫ জনের মনোনয়ন অবৈধ হয়েছে। জমা ১ শতাংশ ভোটার লিস্টে গড়মিল থাকায় মনোনয়ন অবৈধ হয়েছে স্বতন্ত্র প্রার্থী কামরুন্নাহার ও লিটন মৃধার। মনোনয়ন ফরম যথাযথ ভাবে পূরণ না করায় জাতীয় গণতান্ত্রিক ফ্রন্ট এর প্রার্থী মো. কামরুল ইসলাম এর মনোনয়ন অবৈধ ঘোষণা করা হয়। একই কারণে অবৈধ হয় জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দলের হারুন অর রশীদ ও জাতীয় পার্টি(এরশাদ) এর মনোনীত প্রার্থী আখতারুজ্জামান খানের।

ফরিদপুর ০২:  এই আসনটিতে ১ জনের মনোনয়ন অবৈধ হয়েছে। বাংলাদেশের কমিউনিস্ট পার্টি( সিপিবি) এর মো. হাফিজুর রহমান হাফিজ এর মনোনয়ন বাতিল হয় ঋণ সংক্রান্ত জটিলতায়।

ফরিদপুর ০৩:  এই আসনে বাতিল হয়েছে ৫ জনের মনোনয়ন। মনোনয়ন এর সাথে জমা দেয়া ১ শতাংশ ভোটার এর লিস্টে গড়মিল থাকায় বাতিল হয়েছে এই আসনের ৫ স্বতন্ত্র প্রার্থী এমএ মুহিত খান আরিফ, মো. রুহুল আমীন, মীর নিজাম, মো. বনি আমিন ও মো ওবায়দুর রহমান এর মনোনয়ন।

ফরিদপুর ০৪:  এই আসেন ১০ জন প্রার্থীর মনোনয়ন বাতিল হয়েছে। বিদ্যুৎ বিল বকেয়া থাকায় মনোনয়ন বাতিল হয়েছে বাংলাদেশের কমিউনিস্ট পার্টির প্রার্থী আতাউর রহমান, ইসলামী আন্দোলনের প্রার্থী মো. হামিদ মিয়া’র। যথাযথ ভাবে ফরম পূরন না করায় বাতিল হয়েছে জাকের পার্টির প্রার্থী মো. মশিউর রহমান যাদু মিয়া ও ন্যাশনাল পিপলস পার্টির আ.লতিফ মিয়ার মনোনয়ন। এছাড়াও স্বতন্ত্র প্রার্থী ফিরোজ কবীর চৌধুরী, কাজী হেদায়েতুল্লাহ, শাহ মো. আবুল কালাম, মো. ইছাহাক মিয়া, এনামুল হক ও কাজী জাফরের মনোনয়ন অবৈধ ঘোষনা করা হয় ভোটার লিস্টে গড়মিল থাকার কারনে।









Leave a reply