মার্কিন হেফাজতে শিশুর মৃত্যু

|

ফিলিপ গোমেজ নামে ৮ বছর বয়সী এক শিশুর মৃত্যু হয়েছে মার্কিন হেফাজতে। অসুস্থতাজনিত কারনে তার মৃত্যু হয়েছে বলে কর্তৃপক্ষ জানায় । এ ঘটনার পর প্রশাসনের হেফাজতে থাকা শিশুদের পরিবারের কাছে ফেরত দেয়ার দাবি আরও জোরালো হয়েছে।

বঞ্চনার জীবন থেকে মুক্তির আশায় বাবার সাথে বাড়ি ছেড়েছিল গুয়াতেমালার শিশু ফিলিপ আলোনজো গোমেজ। মেক্সিকো সীমান্তে পৌঁছার পরপরই পরিবার থেকে আলাদা করা হয় ৮ বছর বয়েসি গোমেজকে।

দু’সপ্তাহের ব্যবধানে মার্কিন সীমান্তরক্ষী বাহিনী সিবিপি’র অধীনে থাকা আশ্রয়শিবিরে প্রাণ গেলো ২ শিশুর।

গুয়াতেমালার পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়রে মুখপাত্র মার্তা লরা বলেন, মার্কিন পররাষ্ট্র দফতরের সহায়তায় আমরা দুই শিশুর মরদেহ ফেরত এনেছি। প্রশাসনের হেফাজতে থাকা শিশুদের যেন পরিবারের কাছে ফেরত দেয়া হয় এই আবেদনও জানানো হয়েছে।

প্রশাসনের হেফাজতে এভাবে শিশু মৃত্যুর ঘটনায় স্বভাবতই তোলপাড় চলছে যুক্তরাষ্ট্রে। আশ্রয়প্রার্থী এবং অভিবাসন প্রত্যাশী পরিবারগুলোর কাছ থেকে শিশুদের আলাদা করার নীতির তীব্র সমালোচনা চলছে।

টেক্সাসের কংগ্রেস সদস্য বেটো বলেন, প্রশাসনের অধীনে থাকা শিশুর মৃত্যু কোনোভাবেই মেনে যায় না। এ ঘটনার তদন্ত হওয়া উচিত। শিশুদেরকে পরিবারের কাছ থেকে আলাদা করে রাখাইটাই তো অমানবিক। যতদ্রুত সম্ভব তাদের পরিবারের কাছে ফেরত পাঠাতে হবে।

গেল কয়েক মাস ধরেই লাতিন আমেরিকার দেশগুলো থেকে আশ্রয়প্রার্থী এবং অভিবাসন প্রত্যাশীরা ভিড় করছেন মেক্সিকো-যুক্তরাষ্ট্র সীমান্তে। ওয়াশিংটন বলছে, সীমান্ত শহরগুলোতে বর্তমানে অবস্থান করছেন ১০ হাজারের বেশি মানুষ।









Leave a reply