এখনো অম্লান ভিপি-জিএস’র সেই রসায়ন

|

রাজনৈতিক মতাদর্শে ভিন্নতা থাকলেও বিভিন্ন আন্দোলন সংগ্রামের উত্তাল দিনগুলোতে রাজপথে ছিলেন একসাথে। দেশের প্রশ্নে কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে পাক দু:শাসনের বিরুদ্ধে কাঁপিয়ে তুলেছেন রাজপথ। সেই সম্পর্ক এখনো অটুট। শত ব্যস্ততার মাঝেও দেখা হলেই স্মৃতিচারণে মেতে উঠেন তারা। কৈশোরের সেই দিনগুলোতে ফিরে যান বারবার।

বলা হচ্ছে টানা তৃতীয় বারের মতো রেকর্ড সংখ্যক সমর্থন নিয়ে নির্বাচিত হওয়া প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও তার এক সময়কার আন্দোলনের সহযোদ্ধা প্রফেসর নাজমা শামস এর কথা।

নাজমা শামস বর্তমানে বাংলাদেশ স্কাউট গার্লস ইন স্কাউটিং ফোরাম জাতীয় কমিটির সভাপতি।

 

নাজমা শামস আজ গনভনে এসেছিলেন ছাত্রজীবনের রাজনৈতিক প্রতিদ্বন্দ্বিকে অভিনন্দন জানাতে। তাকে দেখেই জড়িয়ে ধরেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তাদের মধ্যে সম্পর্কের এই উষ্ণতা দেখে অভিনন্দন জানাতে আসা সকলের উৎসুক দৃষ্টি তখন ঘুরে যায় তাদের দিকে। একে একে ক্যামেরার ফ্লাশলাইট জ্বলে উঠে।

উৎসুক সকলের প্রতি তখন প্রধানমন্ত্রীই তুলে ধরলেন তাদের সম্পর্কের কথা। জানালেন, তিনি যখন ইডেন কলেজ ছাত্রসংসদের ভিপি ছিলেন তখন প্রফেসর নাজমা শামস ছিলেন জিএস।

শেখ হাসিনা নির্বাচিত হয়েছিলেন ছাত্রলীগ থেকে আর নাজমা শামস নির্বাচিত হয়েছিলেন ছাত্র ইউনিয়ন থেকে। রাজনৈতিক ভিন্নতা থাকলেও তাদের মধ্যকার সম্পর্কটা ছিল খুবই আন্তরিকতায় ভরপুর। সেই সম্পর্ক এখনোও আছে বলে জানান প্রধানমন্ত্রী।

এইসময় তাদের মধ্যকার আলাপে উঠে আসে আন্দোলনের সেই দিনগুলি, সেই সময়ের ছাত্র রাজনীতিসহ নানা খুনসুটি।
তৎকালীন ইডেনের সেই ভিপি এখন শুধু একজন সাবেক সফল ভিপিই নন বরং তিনি বর্তমানে বাংলাদেশের তিনবারের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। হ্যাট্রিক জয়ে দেশের চতুর্থবারের প্রধানমন্ত্রী হিসাবে শিগগিরই শপথ নিবেন। যার নেতৃত্বে বাংলাদেশ এগিয়ে গেছে বহুদুর।









Leave a reply