ব্রাহ্মণবাড়িয়া-২ আসনের স্বতন্ত্র প্রার্থী মঈন উদ্দিনকে বহিষ্কারের দাবি আশুগঞ্জ আ’লীগের

|

ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রতিনিধি:

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ব্রাহ্মণবাড়িয়া-২ (সরাইল-আশুগঞ্জ) আসনে স্বতন্ত্র প্রার্থী মো. মঈন উদ্দিনের বহিস্কার চেয়েছে আশুগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগ।

মঈন উদ্দিন মঈন ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ও বাংলাদেশ আওয়ামী সেচ্ছাসেবক লীগে কেন্দ্রীয় কমিটি সহসভাপতি।

তিনি একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে দলের মনোনয়ন না পেয়ে স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে কলার ছড়ি প্রতীক নিয়ে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেন। উপজেলা আওয়ামীলীগে অভিযোগ তার কারণে বিএনপির প্রার্থী উকিল আবদুস সাত্তার ভূইয়া বিজয়ী হয়েছেন।

আজ বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় আশুগঞ্জ উপজেলা সদরের পূর্ব বাজারে দলীয় কার্যালয়ে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে দলীয় সভানেত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশ না মেনে বিদ্রোহী হয়ে স্বতন্ত্র পদে লড়ার কারণে মহাজোট মনোনীত প্রার্থীর পরাজয় হয়েছে বলে মঈন উদ্দিন মঈনের বিরুদ্ধে লিখিত অভিযোগ আনা হয়।

সংবাদ সম্মেলনে উপজেলা আওয়ামী লীগের আহ্বায়ক মো. ছফিউল্লাহ্ মিয়া লিখিত বক্তবে বলেন, আমরা মহাজোট সমর্থিত প্রার্থী মো. জিয়াউল হক মৃধার পক্ষে প্রচারণায় অংশ নিয়েছি। কিন্ত দলের মনোনয়ন না পেয়ে মঈন উদ্দিন মঈন বিদ্রোহী হয়ে স্বতন্ত্র পদে নির্বাচনে অংশ নেন। তাঁর পক্ষে উপজেলা আওয়ামী লীগের এক যুগ্ম আহ্বায়কসহ কিছু সংখ্যক নেতাকর্মী প্রচারণায় অংশ নেয়। এর ফলে ভোটাররা আরও বিভ্রান্তিতে পড়ে।
তিনি বলেন, মঈন উদ্দিন মঈন ও ও তাঁর কর্মী-সমর্থকরা এলাকার সাধারণ মানুষকে হুমকি-ধামকি দিয়ে অন্যায় ভাবে পুলিশ দিয়ে গ্রেফতার করানোসহ ভোটের দিন বিভিন্ন কেন্দ্র দখল করে ত্রাসের রাজত্ব কায়েম করে মহাজোট প্রার্থীর পরাজয় নিশ্চিত করে এবং ধানের শীষের প্রার্থীর জয়লাভের সুযোগ সৃষ্টি করে দেয়।
এ সময় তিনি মঈন উদ্দিন মঈন উদ্দিনসহ আশুগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম আহবায়ক আবু নাছের, সাবেক উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান মো. আনিসুর রহমানসহ দলীয় পরিচয় দিয়ে মঈনের পক্ষে প্রচারণায় অংশ নেয়া নেতাদের দলীয় শৃঙ্খলা ভঙ্গের দায়ে বহিস্কারের দাবি জানান।

সংবাদ সম্মেলনে আশুগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম আহ্বায়ক হানিফ মুন্সি, হাজী খুরশেদ আলমসহ দলীয় নেতাকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।

উল্লেখ্য, গত ৩০ ডিসেম্বর ব্রাহ্মণবাড়িয়া-২ (সরাইল ও আশুগঞ্জ) আসনের ১৩২ কেন্দ্রের মধ্যে তিন কেন্দ্রে অনিয়ম ও গোলযোগের কারণে ভোটগ্রহণ স্থগিত করা হয়। গতকাল বুধবার ওই তিন কেন্দ্রে পুনঃভোট গ্রহণ করা হয়। এ তিন কেন্দ্রসহ ১৩২ কেন্দ্রের ফলাফলে ধানের শীষ প্রতীকে ৮৩ হাজার ৯৯৭ ভোট পেয়ে আবদুস সাত্তার ভূইয়া বেসরকারিভাবে বিজয়ী হয়েছেন। তাঁর নিটকতম প্রতিদ্বন্দ্বী স্বতন্ত্র প্রার্থী মঈন উদ্দিন কলার ছড়ি প্রতীকে পেয়েছেন ৭৫ হাজার ৪১৯ ভোট।









Leave a reply