ট্রাম্পের বুদ্ধিতে ঘাটতি আছে: সাবেক সিআইএ প্রধান

|

টুইট বার্তায় গোয়েন্দা প্রধানদের এক হাত নিলেন যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প।

মার্কিন গোয়েন্দা প্রধানেরা চরম আনাড়ি ও নিষ্ক্রিয় মন্তব্য করে ট্রাম্প বলেন, ‘আপনারা আবার স্কুলে ফিরে যান।’ আজ স্থানীয় সময় বুধবার টুইট বার্তায় গোয়েন্দা প্রধানদের উদ্দেশ্য করে ট্রাম্প মার্কিন গোয়েন্দা সংস্থার প্রধানদের এমন বিষোদগার ও কটাক্ষ করেন।

সম্প্রতি ইরানের পক্ষ নিয়ে কথা বলা হয় মার্কিন গোয়েন্দাদের তৈরি এক রিপোর্টে। সেখানে বলা হয় – ইরান চুক্তি লঙ্ঘন করে পরমাণু অস্ত্র বানাচ্ছে না। আর তাতেই চরম ক্ষিপ্ত হয়ে টুইটে এসব কথা লেখেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট।

বিশ্বজুড়ে কোথায় কোথায় সম্ভাব্য হুমকি রয়েছে তা নিয়ে জাতীয় নিরাপত্তা বিভাগসহ মার্কিন অন্যান্য গোয়েন্দা এবং গুপ্তচর সংস্থা ওই রিপোর্ট ট্রাম্প সরকারকে দিয়েছিল।

ট্রাম্পের দাবি, ইরানের কাছ থেকে বিপদ সম্পর্কে গোয়েন্দাদের পর্যবেক্ষণ একেবারই ভুল। ইরান পারমানবিক অস্ত্র তৈরির দ্বারপ্রান্তে রয়েছে বলে দাবি করেন তিনি। ইরানের রকেট পরীক্ষাই তার প্রমাণ বলে জানান তিনি।

উত্তর কোরিয়ার কাছ থেকে পারমানবিক অস্ত্রের হুমকি এখনও বিদ্যমান রয়েছে জানিয়ে ওই গোয়েন্দা রিপোর্টে উল্লেখ করা হয়েছে, পিয়ংইয়ং পারমানবিক অস্ত্র কর্মসূচি ত্যাগে প্রস্তুত নয়।

আর প্রেসিডেন্টের এমন বিষোদগারে চুপ ছিলেন না সিআইএর সাবেক প্রধান জন ব্রেনান।

পাল্টা প্রতিক্রিয়ায় জন ব্রেনান জানান, ‘গোয়েন্দা রিপোর্টকে এভাবে প্রত্যাখ্যান ও কটাক্ষ করে ট্রাম্প প্রমাণ করছেন যে গোয়েন্দারা নন, তার নিজেরই বুদ্ধিতে ঘাটতি দেখা গেছে।’

সরকারকে দেয়া জাতীয় নিরাপত্তা বিভাগসহ অন্যান্য মার্কিন গোয়েন্দা সংস্থার এমন রিপোর্টে বেশ অস্বস্তিতে পড়েছেন ট্রাম্প। ইরানের সঙ্গে সাবেক মার্কিন প্রেসিডেন্ট ওবামার ২০১৫ সালের পারমানবিক অস্ত্র থেকে বিরতি চুক্তিকে ট্রাম্প একতরফা প্রত্যাহার করে নেন। সেসময় ইরানের ওপর কঠোর অর্থনৈতিক নিষেধাজ্ঞা আরোপ করেন তিনি।

এখন ইরানের পারমানবিক কর্মসূচি নিয়ে তারই গোয়েন্দা সংস্থাগুলোর এমন রিপোর্ট এলো।









Leave a reply