রাজাকার পুত্র লিয়াকতের বিরুদ্ধে দুদকের মামলা

|

সিলেট ব্যুরো:

নানা সমালোচনার পরও উপজেলা নির্বাচনে সিলেটের জৈন্তাপুর উপজেলার চেয়ারম্যান পদে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন পেয়েও পার পেলেন না পাথরখেকো হিসেবে পরিচিত জৈন্তাপুরের টেনাই রাজাকারের ছেলে লিয়াকত আলী। তার বিরুদ্ধে অবৈধ সম্পদ অর্জনের মামলা করেছে দুর্নীতি দমন কমিশন(দুদক)। লিয়াকত আলী জৈন্তাপুর উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক।

গতকাল সোমবার বিকেলে ঢাকার রমনা থানায় মামলাটি দায়ের করেন দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক) ঢাকা কার্যালয়ের উপ-পরিচালক সাইদুজ্জামান। দুর্নীতি দমন কমিশন আইন ২০০৪ এর ২৬(২)/২৭(১) ধারায় মামলাটি দায়ের করা হয়।

মামলায় বলা হয়, লিয়াকত আলীর দেয়া হিসাবের বাইরে ২ কোটি ৫৭ লাখ ৫২ হাজার ২৩১.২৬ টাকার সন্ধান পেয়েছে দুদক। এসব টাকা অবৈধ ভাবে অর্জন করেছে সে।

রমনা থানার অফিসার ইনচার্জ(তদন্ত) জহিরুল ইসলাম জানান, দুর্নীতি দমন কমিশন দীর্ঘদিন ধরে আসামি লিয়াকত আলীর সম্পদ অনুসন্ধান করছেন প্রাথমিক ভাবে তারা তার জ্ঞাত আয় বহির্ভূত সম্পদ পেয়েছেন। বিকেলে দুদকের উপ-পরিচালক সাইদুজ্জামান রমনা থানায় তার বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেছেন মামলা নং-২০, তারিখ ১১ ফেব্রুয়ারি,২০১৯।

দুদকের জনসংযোগ কর্মকর্তা (পিআরও) প্রণব কুমার ভট্টাচার্য বিষয়টি স্বীকার করে বলেন, দীর্ঘদিন ধরেই লিয়াকত আলীর অঢেল সম্পদের অনুসন্ধান চালিয়েছে দুদক। প্রাথমিক তদন্তে তার দেয়া হিসাবের বাইরে ২ কোটি ৫৭ লাখ ৫২ হাজার ২৩১.২৬ টাকার সন্ধান পেয়েছে দুদক। তিনি আরও জানান, মামলাটি তদন্ত করবে দুদক।

এর আগে ২৫/১০/২০১৭ তারিখে জনাব লিয়াকত আলী’র নামে ও তার উপর নির্ভরশীল পরিবারের অন্যান্য সদস্যদের নামে অর্জিত স্থাবর ও অস্থাবর সম্পদের হিসাব বিবরণী চায় দুদক।

তৎপ্রেক্ষিতে জনাব লিয়াকত আলী গত ১৫/১১/২০১৭ তারিখে দুর্নীতি দমন কমিশনে তার সম্পদ বিবরণী দাখিল করেন।

সম্পদ বিবরণী যাচাইকালে দেখা যায় যে, জনাব লিয়াকত আলী দুর্নীতি দমন কমিশনে দাখিলকৃত সম্পদ বিবরণীতে তার নিজ নামে ১,৩৪,১২,৯১৪/- টাকা মূল্যের স্থাবর ও ৮১,৭৪,৮১৩.০৮/- টাকা মূল্যের অস্থাবরসহ মোট (১,৩৪,১২,৯১৪+ ৮১,৭৪,৮১৩.০৮) = ২,১৫,৮৭,৭২৭.০৮/- টাকা মূল্যের স্থাবর ও অস্থাবর সম্পদের মালিকানা অর্জনের ঘোষণা দেন। দাখিলকৃত সম্পদ বিবরণী যাচাইকালে তার নামে (১) দলিল নং ১৫৯৭/১৭ মূলে ক্রয়কৃত ০.২৩ একর জমি যার মূল্য রেজিঃ খরচসহ ৩৩,০০,০০০/-টাকা, (২) দলিল নং ৯৫৫/১০ মূলে ক্রয়কৃত জমির মূল্য ২৫,৬৬৬.৬৭ টাকা ও (৩) স্থাপনার ক্ষেত্রে ৯২,৪০,০০০/ টাকার পরিবর্তে মাত্র ২৪,৮৫,৫১৪/ টাকা মূল্য প্রদর্শন করে অবশিষ্ট ৬৭,৫৪,৪৮৬/ টাকাসহ মোট (৩৩,০০,০০০+২৫,৬৬৬.৬৭+৬৭,৫৪,৪৮৬)=১,০০,৮০,১৫২.৬৭ টাকার স্থাবর এবং (১) বাংলাদেশ কৃষি ব্যাংক, জৈন্তাপুর শাখায় জমাকৃত ১১,০৩৭/- টাকা, (২) ডাচ বাংলা ব্যাংকে জমাকৃত ৫২,১৯২.৫১ টাকা, (৩) ২০১০ সনে তার অনুক‚লে রেজিস্ট্রিকৃত ১টি ট্রাক ও (৪) ০৩/৯/১৫ তারিখ তার অনুক‚লে রেজিস্ট্রিকৃত ১টি মোটর সাইকেলসহ মোট (১১,০৩৭+৫২,১৯২.৫১)=৬৩,২২৯.৫১ টাকার অস্থাবর সর্বমোট (১,০০,৮০,১৫২.৬৭+৬৩,২২৯.৫১)=১,০১,৪৩,৩৮২.১৮ টাকার স্থাবর অস্থাবর সম্পদসহ ১টি ট্রাক ও ১টি মোটর সাইকেল গোপনপূর্বক মিথ্যা বিবরণী দাখিল করেন।

নানা সমালোচনা এবং স্থানীয় জেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডের অনুরোধ সত্বেও গত ১০ ফেব্রুয়ারি জৈন্তাপুর উপজেলায় আসন্ন নির্বাচনে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন পান রাজাকার পুত্র হিসেবে পরিচিত লিয়াকত আলী। তার বিরুদ্ধে অবৈধ ভাবে পাথর উত্তোলন করে জাফলংয়ের দুটি নদী ধ্বংস করা, পাথর কোয়ারী দখলে নিতে খুনের মামলা সহ নানা অভিযোগ রয়েছে।









Leave a reply