ফরিদপুরে বিপুল পরিমাণ নকল ইলেকট্রনিক পণ্য জব্দ, ১ জনের কারাদণ্ড

|

ফরিদপুর প্রতিনিধি:

ফরিদপুরে অভিযান চালিয়ে বিপুল পরিমাণ নকল স্টিকার লাগানো ইলেকট্রিক পণ্য জব্দ করেছে ভ্রমমাণ আদালত। এগুলোর মধ্যে রয়েছে স্যামসাং, সিঙ্গার, সনি, স্টিকার লাগানো এলইডি টিভি, এসি, ফ্রিজ ও ইলেকট্রনিক পণ্য সামগ্রী। এসময় মিঠুন হোসেন নামে একজনকে ১ বছরের বিনাশ্রম কারাদণ্ড প্রদান করে ভ্রমমাণ আদালত।
মঙ্গলবার সন্ধ্যায় আলিপুর ইসলামী ব্যাংক হাসপাতালের পিছনে রিলেশন ট্রেডিং নামে একটি শো-রুমে যৌথভাবে অভিযান চালায় জেলা প্রশাসন ও র‌্যাব ৮ ফরিদপুরের সদস্যরা। অভিযানের নেতৃত্ব দেন সদর উপজেলার সহকারী কমিশনার(ভূমি) ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট পারভেজ মল্লিক।
ফরিদপুর র‌্যাব ৮ সহকারী পুলিশ সুপার মোঃ ইফতেখারউজ্জামান বলেন, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে র‌্যাব জানতে পারে ফরিদপুর শহরের আলীপুরে চায়না থেকে আমদানিকৃত নকল ও নিম্মমানের ইলেক্ট্রনিক্স সামগ্রীতে নামী দামী ব্রান্ডের লোগো লাগিয়ে বেশী দামে বিক্রি করছে একটি চক্র। সংবাদের ভিত্তিতে র‌্যাব অভিযানে চালিয়ে হাতে নাতে বিপুল পরিমাণ নকল ইলেক্ট্রনিক্স পণ্য, নামী দামী ব্রান্ডের লোগো, লোগো লাগানোর সামগ্রী জব্দ করে। এসময় মিঠুন হোসেন নামে এক ব্যবসায়ীকে আটক করা হয়। পরে তাকে ভ্রমমাণ আদালতে সোপর্দ করা হয়।
ভ্রমমাণ আদালতের বিচারক ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মো. পারভেজ মল্লিক বলেন, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে র‌্যাব সদস্যদের সাথে নিয়ে এই শো রুমে অভিযান চালানো হয়। অভিযানে বিপুল পরিমাণ নকল টিভি, ফ্রিজ, এসিসহ অন্যান্য ইলেক্ট্রনিক্স সামগ্রী, বিভিন্ন ধরনের ইলেকট্রনিক ব্রান্ডের পণ্য যেমন স্যামসাং, সিঙ্গার, সনি, এলজি ইত্যাদি পণ্যের লোগো, স্টিকার ও ছাপ দেয়ার মেশিন জব্দ করা হয়।
তিনি জানান, এই চক্রটি চায়না থেকে আমদানিকৃত নিম্ম মানের ইলেক্ট্রনিক্স সামগ্রীতে নামী দামী ব্রান্ডের লোগো লাগিয়ে বেশী দামে বিক্রি করতো। ভ্রমমাণ আদালতের কাছে তারা সেটা স্বীকারও করেছে।
তিনি বলেন, এই সকল অভিযোগে শো রুমের মালিক মো. মিঠুন (২৮) কে ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ আইনে এক বছরের বিনাশ্রম কারাদণ্ড প্রদান করা হয়েছে। এবং সকল নকল ইলেক্ট্রনিক্স পণ্য জব্দ করা হয়েছে।









Leave a reply