মামলায় জিতে গেইল বললেন, ‘আই অ্যাম এ গুড ম্যান’

|

২০১৫ বিশ্বকাপে অশালীনভাবে এক নারীর কাছে নিজেকে উপস্থাপন করেছিলেন ক্রিস গেইল। তার বিরুদ্ধে এ অভিযোগ এনেছিল অস্ট্রেলিয়ান একটি সংবাদমাধ্যম। সেই সংবাদমাধ্যমের বিরুদ্ধে মানহানির মামলা করেছিলেন ক্যারিবীয় তারকা। প্রায় এক বছরেরও বেশি সময় পর অবশেষে সেই মামলায় জিতেছেন গেইল।

আজ সোমবার দুই ঘণ্টারও কম সময় আদালতে যুক্তি-তর্কের পর গেইলের বিরুদ্ধে আনা অভিযোগুলোর পক্ষে কোন প্রমাণ দেখাতে পারেনি অভিযোগ আনা ফেয়ারফ্যাক্স মিডিয়া। তারা যেসব রিপোর্টের কথা দাবি করছিল, এর সত্যতা তুলে ধরতে ব্যর্থ হয়েছে আদালতে।

নিজেকে নির্দোষ প্রমাণ করতে পেরে আনন্দিত ক্রিস গেইল বললেন, ‘জ্যামাইকা থেকে উড়ে এসেছি শুধুমাত্র নিজের অবস্থান তুলে ধরতে। দিন শেষে সত্যিই আমি হাসি মুখ নিয়ে যাচ্ছি। আই অ্যাম এ গুড ম্যান। আমি দোষী নই।’

আদালত জানিয়েছে, গেইলের বিরুদ্ধে যেসব রিপোর্ট প্রকাশিত হয়েছে তা ছিল উদ্দেশ্য-প্রণোদিত। এর ফলে গেইল যেই ক্ষতির মুখে পড়েছেন তার একটি শুনানি অনুষ্ঠিত হবে পরে। তবে ফেয়ারফ্যাক্স মিডিয়া জানিয়েছে তারা আপিল করবে।

ওই নারীর অভিযোগ অনুযায়ী, তিনি খেলোয়াড়দের ড্রেসিং রুমে ঢুকেছিলেন। এমন সময় গেইল তাকে জিজ্ঞেস করেন, ‘কী চাচ্ছো?’ নারীটি উত্তরে বলেন, ‘একটা তোয়ালে।’ তখন গেইল নিজের পুরুষাঙ্গের দিকে ইঙ্গিত করে বলেন, ‘তুমি কি এটা চাচ্ছো?’ এমতাবস্থায় ‘না’ বলে লজ্জায় মুখ ঢেকে রুম ত্যাগ করেন ওই নারী।









Leave a reply