যুবলীগ নেতার ভাইয়ের বিরুদ্ধে এক্সকেভেটর পোড়ানোর অভিযোগ

|

ফরিদপুর প্রতিনিধি:

ফরিদপুরের নর্থচ্যানেল ইউনিয়নের চর টেপুরাকান্দিতে মাটি কাটার কাজে নিয়োজিত একটি স্কেবেটর (বেকু) পুড়িয়ে দেয়ার অভিযোগ উঠেছে স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান ও যুবলীগ নেতা মেহেদী হাসান মিন্টু ফকির এবং তার সমর্থকদের বিরুদ্ধে।

স্কেবেটরের মালিক খলিফা কামাল উদ্দিন জানান, গত রবিবার সন্ধ্যায় মোবাইল কোর্টের অভিযানে অবৈধভাবে বালু উত্তোলনের অভিযোগে ওই ব্যক্তিকে ৫০হাজার টাকা জরিমানা করায় সে ক্ষুব্ধ হয়ে দলবল নিয়ে সোমবার দিবাগত মধ্য রাতে এঘটনা ঘটায় বলে জানিয়েছেন স্কেবেটরের মালিক খলিফা কামাল উদ্দিন।

অগ্নিসংযোগে নেতৃত্বদানকারী ডিক্রিরচর ইউপি চেয়ারম্যান ও যুবলীগ নেতা মেহেদী হাসান মিন্টু ফকিরের ভাই বলেও জানান তিনি।

খলিফা কামাল উদ্দিন আরো জানান, ইউনিয়নের গোলডাঙ্গী ব্রীজের নিকট থেকে বালু উত্তোলনের অভিযোগে রোববার বিকালে ভ্রাম্যমাণ আদালত দুইটি ড্রেজার ধ্বংস ও ডিক্রিরচর ইউনিয়নের চেয়ারম্যানের ভাই মো. জাহাঙ্গীর ফকিরকে ঘটনাস্থল থেকে আটক করে ৫০হাজার টাকা জরিমানা করে।

এঘটনার পর সে ক্ষুব্ধ হয়ে ব্যক্তি মালিকানাধীন জায়গায় থেকে সরকারী সারদা সুন্দরী বালিকা বিদ্যালয়ের মাঠের মাটি ভরাট কাজের নিয়োজিত থাকা স্কেবেটরটিতে আগুন লাগিয়ে দেয়।

এসময় মো. জাহাঙ্গীর ফকির, মো. সাব্বির ফকির, মো. আলমগীর ফকির, ইলিয়াস ফকিরসহ অন্তত ১০-১২ জন উপস্থিত ছিলেন বলে দাবী করেন তিনি। তিনি আরো জানান, এ ঘটনায় অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে থানায় অভিযোগ দেয়ার প্রস্তুতি চলছে।

অপরদিকে যুবলীগ নেতা ও ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মেহেদী হাসান মিন্টু অভিযোগ অস্বীকার করে বলেন, এই ঘটনায় তিনি বা তার সহযোগী কারো সম্পৃক্ততা নেই। স্কেবেটর পোড়ানোর ব্যাপারে আমাদের কিছু জানা নেই। প্রতিপক্ষের লোকজন সুযোগ নিতে অপপ্রচার চালাচ্ছে বলে দাবী করেন তিনি।









Leave a reply