সেঁজুতি বড়ুয়ার ২য় কাব্যগ্রন্থ ‘শঙ্খচূড় ঘ্রাণ’

|

২০১৯-র একুশে বইমেলায় চৈতন্য প্রকাশনী (স্টল নং: ৫৩৫-৫৩৬) থেকে প্রকাশিত হয়েছে সেঁজুতি বড়ুয়ার ২য় কাব্যগ্রন্থ ‘শঙ্খচূড় ঘ্রাণ’। ৬৪ পৃষ্ঠার এই বইটির দাম ১২০ (মেলায় ২৫% ছাড়ে) টাকা।

সেঁজুতি বড়ুয়ার লেখালিখি শুরু ১৯৯৯ সাল থেকে। ‘শঙ্খচূড় ঘ্রাণ’ তার ২য় কাব্যগ্রন্থ। ২০১৮-র একুশে বইমেলায় চৈতন্য প্রকাশনী থেকে প্রকাশিত হয় ১ম কাব্যগ্রন্থ ‘হৃৎ’। ‘হৃৎ’ কাব্যগ্রন্থটি সিটি আনন্দআলো সাহিত্য পুরস্কার ২০১৮ লাভ করে।

কবিতা নিয়ে লেখক বলেন, বর্ণিল শব্দরঙের ইলিউশনে-টেক্সচারের পাশাপাশি নৈব্যক্তিক এক সাঙ্গীতিক জগতে আচ্ছন্ন থাকে মন। সে জগত সবসময়ই মানুষ আর নিসর্গের প্রতি ভালোবাসায় ভরপুর। তাই সেই প্রচণ্ড অনুভবের জায়গা থেকে কবিতাগুলো হয়ে ওঠে যেন একেকটি দৃশ্যযুক্ত অথবা দৃশ্যবিহীন চলমান প্লাটফর্ম যা কখনো খুব মনস্তাত্ত্বিক, কখনো উপলব্ধিজাত আত্মকথন।

সেঁজুতির গ্রামের বাড়ি চট্টগ্রামের রাউজানে, মহামুনি পাহাড়তলিতে। তবে জন্ম কর্ণফুলির অপরূপ নিসর্গঘেরা গ্রাম পটিয়ার কোলাগাঁও-এ, মামা বাড়িতে। ঢাকাতেই বেড়ে ওঠা, পড়াশোনা, জীবন-জীবিকা সবকিছু। ছোটবেলা থেকেই লেখালেখির প্রতি প্রবল আগ্রহ। ১৯৯৯ সালে দৈনিক মুক্তকণ্ঠে কবিতা দিয়ে কবিজীবনের আত্মপ্রকাশ। বিভিন্ন জাতীয় দৈনিকের সাহিত্য সাময়িকী, বিশেষ সংখ্যা, লিটল ম্যাগে নিয়মিত প্রকাশিত হয়েছে অসংখ্য কবিতা ও গল্প। দীর্ঘদিন ধরে বিজ্ঞাপনী সংস্থায় ক্রিয়েটিভ বিভাগে কর্মরত। কাজ করছেন নারী ও শিশুর অধিকার, স্বাস্থ্য, স্যানিটেশন, শিক্ষা, মানবাধিকার সহ ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠী ও নারী অভিবাসী কর্মীদের বিভিন্ন ইস্যু নিয়ে। যদিও ক্যারিয়ার শুরু হয় সাংবাদিকতা দিয়ে। ফ্রিল্যান্স সাংবাদিক হিসেবে লিখেছেন দৈনিক সমকাল-এ।









Leave a reply