চকবাজার অগ্নিকাণ্ডে শরীয়তপুরে দুই পরিবারে শোকের মাতম

|

???????????????????????

শরীয়তপুর প্রতিনিধি:

চকবাজার অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় অগ্নিদগ্ধ হয়ে শরীয়তপুরের দুই জন প্রাণ হারিয়েছেন। এদের একজন ওয়াহেদ ম্যানশনের একটি ডেকোরেটর দোকানের কর্মচারী বিল্লাল হেসেন। অন্যজন পাশের বড়কাটরা এলাকার একটি মাদ্রাসার শিক্ষক মুফতি ওমর ফারুক।

বিল্লাল হোসেনের বাড়ি শরীয়তপুর সদর উপজেলার গ্রামচিকন্দি গ্রামে। আর ওমর ফারুকের বাড়ি নড়িয়া উপজেলার পদ্মার দুর্গম চরাঞ্চল চরআত্রা মুন্সিকান্দি গ্রামে। তাদের এ মর্মান্তিক মৃত্যুতে এলাকায় শোকের ছায়া নেমে এসেছে।

স্থানীয় সূত্র জানায়, বিল্লাল হোসেন চুরিহাট্টা গলির ওয়াহেদ ম্যানশনের একটি ডেকোরেটরের দোকানে শ্রমিকের কাজ করতেন। বুধবার আগুন ছড়িয়ে পরলে ভবনের ওই দোকানে আটকা পরেন তিনি। পরের দিন সেখান থেকে তার পুড়ে যাওয়া মরদেহ উদ্ধার করা হয়। এরপর ঢাকার আজিমপুরে লাশ দাফন করা হয়েছে।

ওমর ফারুক ঢাকার বড়কাটরা এলাকায় একটি মাদ্রাসায় শিক্ষকতা করতেন। গত বুধবার রাতে কাজ শেষে মাদ্রাসায় ফেরার পথে চকবাজারের চুরিহাট্টা গলিতে আটকা পরেন। উদ্ধার কর্মীরা সেখান থেকে তার পুরে যাওয়া মরদেহ উদ্ধার করেন। লাশ সনাক্ত শেষে বৃহস্পতিবার রাতেই মামা বাড়ি মুন্সিগঞ্জের লৌহজংয়ের দিঘিরপার গ্রামে দাফন করা হয়।

শরীয়তপুরের জেলা প্রশাসক কাজী আবু তাহের বলেন,মর্মান্তিক দুর্ঘটনায় শরীয়তপুরের দু’জনের করুণ মৃত্যু হয়েছে। সরকার ঘোষিত সকল অনুদান তাদের পরিবার পাবে। এছাড়া জেলা প্রশাসন ওই দু’জনের পরিবারকে সব ধরনের সহায়তা দেবে।









Leave a reply