‘অপারেশন সফল, তবে ঝুঁকিমুক্ত হতে সময় লাগবে’

|

বিরল রোগে আক্রান্ত শিশু মুক্তামনির অস্ত্রোপচার সফলভাবে শেষ হয়ছে বলে জানিয়েছেন ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের চিকিৎসকরা। আজ শনিবার সকাল ৮টা ২০ মিনিটে মুক্তামনিকে অস্ত্রোপচার কক্ষে ঢোকানো হয়।

অস্ত্রোপচার প্রক্রিয়ায় ২০ জনের বেশি চিকিৎসক ছিলেন বলে জানিয়েছে বার্ন ইউনিট কর্তৃপক্ষ। ইউনিটের সমন্বয়ক সামন্ত লাল সেন বলেন, মুক্তামনির অপারেশন সফলভাবে হয়েছে। তবে তাকে ঝুঁকিমুক্ত ঘোষণা করতে আরও সময় লাগবে।

অস্ত্রোপচার কক্ষের সামনে সকাল থেকে অপেক্ষায়  ছিলেন মুক্তামনির মা-বাবা ও স্বজনরা। শিশুটির সর্বশেষ অবস্থা জানার জন্য অধীর আগ্রহে অপেক্ষা করছেন আরও অনেকে।

মা আয়েশা খাতুন বলেন, ডাক্তাররা বলেছেন, আশা করি আমার মেয়ে ভালো হয়ে যাবে। এখন আমাদের দোয়া ছাড়া কিছু করার নাই, সবাই যদি দোয়া করে আমার বাচ্চা ঠিক হয়ে যাবে।

প্রাথমিকভাবে মুক্তার রোগটি ‘হাইপারকেরাটসিস’ কিংবা ‘স্কিন ক্যান্সার’ হতে পারে বলে সাতক্ষীরা মেডিকেল কলেজের সহকারী অধ্যাপক মো. নাসিরউদ্দিন জানিয়েছিলেন।

গত শনিবার বায়োপসি সম্পন্ন করার পর সোমবার চিকিৎসকরা জানান, মূলত রক্তনালীতে টিউমার হওয়ার কারণে হাত ফুলে যায় মুক্তামনির।

সাতক্ষীরা সদর উপজেলার কামারবায়সা গ্রামের মুদি দোকানি ইব্রাহীম হোসেনের ১২ বছরের মেয়ে মুক্তামনির ডান হাতে দেড় বছর বয়সে একটি ছোট গোটা দেখা দেয়। পরে তা বাড়তে থাকে।

বছর চারেক আগে এমন পর্যায় যায় যে তার স্বাভাবিক চলাফেরা ব্যাহত হচ্ছে। আক্রান্ত হাতটি তার দেহের চেয়ে ভারি হয়ে উঠেছে, যন্ত্রণায় সব সময় অস্থির থাকে সে। মুক্তামনির অসুস্থতার খবর গণমাধ্যমে আসার পর তার চিকিৎসার দায়িত্ব নেয় সরকার।

/কিউএস









Leave a reply