ডাকসুতে পুন:নির্বাচনের আন্দোলন চালিয়ে যাবার ঘোষনা ভিপি নুরের

|

ডাকসু নির্বাচন পুনরায় অনুষ্ঠিত করার দাবিতে আন্দোলন চালিয়ে যাবার ঘোষনা দিলেন ডাকসুর নব নির্বাচিত ভিপি নুরুল হক নুর।

আজ বিকেল ৪ টায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের মধুর ক্যান্টিনে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে এ ঘোষনা দেন তিনি। এসময় তার সাথে আরো উপস্থিত ছিলেন ডাকসুতে প্রগতিশীল জোট থেকে ভিপি প্রার্থী লিটন নন্দী, স্বতন্ত্র ভিপি প্রার্থী অরণী সেমন্তী, স্বতন্ত্র জিএস প্রার্থী এ আর এম আসিফুর রহমান, ছা্ত্র ফেডারেশনে জিএস প্রার্থী উম্মে হাবিবা বেনজির ও স্বতন্ত্র, স্বাধিকার স্বতন্ত্র পরিষদ, প্রগতিশীল ছাত্র জোট, কোটা ও ছাত্র ফেডারেশনের অন্যান্য নেতাকর্মীরা।

নুরু বলেন, ডাকসু নির্বাচন সুষ্ঠু হয়নি এবং এর মাধ্যমে ঢাবিতে কালিমা লিপ্ত হয়েছে। আমরা ভেবেছিলাম এই নির্বাচন ব্যবস্থার মাধ্যমে সাধারণ মানুষের নির্বাচনে প্রতি আস্থা ফিরে আসবে কিন্তু তা হয়নি।

এসময় তিনি আন্দোলনকারীরা চাইলে তবেই ভিপি হিসেবে দায়িত্ব নেবেন বলে জানান, সেইসাথে নির্বাচনে অনিয়েমের বিষয়ে প্রধানমন্ত্রীর দৃষ্টি আকর্ষণ করা হয়েছে বলেও জানান।

নুরু আরো বলেন, আমার বক্তব্য নিয়ে বিভ্রান্তির কোন সুযোগ নেই। শিক্ষার্থীদের সকলের সাথে একমত হয়ে আমি সকল পদেই পুন:নির্বাচন দাবি করছি।

সংবাদ সম্মেলনে কোটা আন্দোলনের যুগ্ম আহ্বায়ক ফারুক বলেন, আমরা ৫ প্যানেল একসাথেই আন্দোলন করে যাবো।

স্বাধিকার স্বতন্ত্র পরিষদ থেকে জিএস প্রার্থী আসিফুর রহমান বলেন, আমরা ৫ প্যানেল একসাথে আছি এবং থাকবো। আর অনিয়মের ব্যাপারে প্রমাণ দেয়ার পরও বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন আমাদের কোন সহযোগীতা করছেনা।

সংবাদ সম্মেলন থেকে কোটা সংস্কার প্যানেল, প্রগতিশীল ছাত্র জোট, স্বাধিকার স্বতন্ত্র জোট, স্বতন্ত্র জোট ও ছাত্র ফেডারেশন সকলে মিলে একসাথে আন্দোলন চালিয়ে যাবার ঘোষনা দেন। এছাড়াও তারা সংবাদ সম্মেলন থেকে ৫টি দাবিও উত্থাপন করেন।

দাবিগুলো হলো- এই নির্বাচন বাতিল করত হবে, পুনরায় নির্বাচনের জন্য তফসিল ঘোষনা করতে হবে, উপাচার্যের অপসারণ ও শিক্ষার্থীদের নামে দায়েরকৃত মামলা প্রত্যাহার করতে হবে একইসাথে শিক্ষার্থীদের উপর হামলার সাথে জড়িতদের গ্রেফতার করতে হবে।









Leave a reply