তিনদিন পরেই ম্যাচ-ফিক্সিং নিয়ে মুখ খুলবেন ধোনি

|

ভারতের ক্রিকেট ইতিহাসে আজীবন অভিশপ্ত হয়ে থাকবে ২০১৩ সালটা। আইপিএলে ম্যাচ-ফিক্সিং কাণ্ডে নড়ে গিয়েছিল গোটা ক্রিকেট বিশ্ব। কালিমালিপ্ত হয়েছিল দেশের ক্রিকেট। বাঘা বাঘা ক্রিকেটারদের গায়েই ছিটকে এসেছিল সেই কালি। বাদ যাননি স্বয়ং মহেন্দ্র সিং ধোনি। টুর্নামেন্টের অন্যতম সফল দল চেন্নাই সুপার কিংসের চ্যাম্পিয়ন ক্যাপ্টেনও অভিযুক্ত হয়েছিলেন এই ঘটনায়। ফের শুরু হচ্ছে আইপিএল। ফিরছে ২০১৩-র স্মৃতি।

স্টার ইন্ডিয়ার মোবাইল ও ডিজিট্যাল এন্টারটেন্টমেন্ট প্ল্যাটফর্ম হটস্টার, তারা নিয়ে আসছে সিএসকে-র ওপর তৈরি বিশেষ তথ্যচিত্র ‘রোর অফ দ্য লায়ন’। এই প্রথম সেখানে ম্যাচ-ফিক্সিংয়ের মতো মারাত্মক অপরাধ নিয়ে মুখ খুললেন খোদ ধোনি।

তিনি বললেন, “ম্যাচ গড়াপেটায় আমাদের দল জড়িয়ে গিয়েছিল। অভিযুক্ত হয়েছিলাম আমিও। খুব কঠিন সময়ের মধ্যে দিয়ে গিয়েছিলাম। ফ্যানেরা মনে করেছিল শাস্তিটা অত্যন্ত কড়া। কিন্তু ফিরে আসাটা অত্যন্ত আবেগপ্রবণ ছিল। আসলে যেটা ভেতরে ভেতরে মানুষক মেরে ফেল, সেটাই শক্তিশালী করে তোলে।”

২০১৫ সালের সিএসকে আর রাজস্থান রয়্যালসকে দু’বছরের জন্য আইপিএল থেকে সাসপেন্ড করা হয়। চেন্নাই দলের মাথা গুরুনাথ মায়াপ্পন ও রাজস্থানের সহমালিক রাজ কুন্দ্রার উপরও নেমে আসে শাস্তির খাঁড়া। বিসিসিআই পরিচালিত ক্রিকেট ম্যাচের কোনও কার্যকলাপ থেকে তাঁদের আজীবন সাসপেন্ড করা হয়। দেশের সর্বোচ্চ আদালত সুপ্রিম কোর্ট সেই রায় দিয়েছিল। গতবছর আইপিএল-এ প্রত্যাবর্তন করেই চ্যাম্পিয়ন হয়েছিল ধোনির চেন্নাই। স্বপ্নের প্রত্যাবর্ন ছিল রূপকথার মতোই। আর ম্যাচ ফ্রিক্সিংয়ের প্রসঙ্গে মাহি বলেছেন, “আমার কাছে খুন করার থেকেও এটা বড় অপরাধ।”

সূত্র: ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস।









Leave a reply