আমার মতো নির্যাতিত ও নিষ্পেষিত নেতা আর কেউ নেই

|

বিরোধীদলীয় নেতা, সাবেক রাষ্ট্রপতি ও জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ বলেছেন, আমার মতো অত্যাচারিত, নির্যাতিত ও নিষ্পেষিত নেতা এ দেশে আর কেউ নেই। দীর্ঘদিন কারাগারে ছিলাম, কেউ পাশে ছিল না। শত অত্যাচার আমাদের দমাতে পারেনি। শুধু মনের জোরে এগিয়ে চলেছি। শত ষড়যন্ত্র আমাদের ধংস করতে পারেনি।

জাতীয় পার্টির দীর্ঘ পথচলার বিষয়টি উল্লেখ করে তিনি আরও বলেন, অবিচার আর অত্যাচারে যে দল ভেঙে পড়ে না, সে দলকে কেউই ধ্বংস করতে পারবে না।

নেতাকর্মীদের প্রতি আহ্বান জানিয়ে হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ বলেন, জাতীয় পার্টিকে শক্তিশালী করে তোলো, যাতে আগামী নির্বাচনে ক্ষমতায় যেতে পারে।

বুধবার দুপুরে গুলশানের ইমানুয়েলস মিলনায়তনে নিজের ৯০তম জন্মদিনের কেক কেটে হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ এসব কথা বলেন।

অনুষ্ঠানে হুইলচেয়ারে উপস্থিত হন তিনি। এ সময় দলীয় নেতাকর্মীরা তাকে জন্মদিনের শুভেচ্ছা জানান।

নিজেকে নির্যাতিত-নিপীড়িত দাবি করে জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ বলেছেন, এটাই হয়তো আমার জীবনের শেষ বক্তব্য।

তিনি আরও বলেন, স্ব-ইচ্ছায় ক্ষমতা ছেড়ে দেওয়ার পর পাঁচ দিনের মাথায় আমাকে জেলে যেতে হয়েছে। আমার ওপর নানারকম অত্যাচার নির্যাতন চালানো হয়েছে। মনে জোর ছিল বলে টিকে আছি। কেউ আমাকে দমাতে পারেনি।

এর আগে পার্টির সিনিয়র কো-চেয়ারম্যান রওশন এরশাদ এমপি বলেন, সবাই পার্টির চেয়ারম্যানের জন্য দোয়া করুন, যাতে তিনি সুস্থ হয়ে দেশের মানুষের জন্য কাজ করতে পারেন। তিনি উল্লেখ করে বলেন, হুসেইন মুহম্মদ এরশাদের ৯ বছরে উন্নয়নের যে রেকর্ড গড়েছেন তা কেউ ভাঙতে পারবে না। বঙ্গবন্ধু একটি স্বাধীন দেশ দিয়ে ছিলেন। কিন্তু দেশটি গড়ার জন্য পর্যাপ্ত সময় বঙ্গবন্ধু পাননি। দেশ গড়ার জন্য হুসেইন মুহম্মদ এরশাদের অসংখ্য কীর্তি অক্ষয় হয়ে আছে।

নেতাকর্মীদের এক প্রশ্নের জবাবে রওশন এরশাদ বলেন, সম্মিলিত সামরিক হাসপাতালে (সিএমএইচে) এরশাদের কোনও ভুল চিকিৎসা হয়নি।

পার্টির কো-চেয়ারম্যান ও বিরোধীদলীয় উপনেতা জিএম কাদের এমপি বলেন, আজ শপথ নেয়ার দিন। আমরা শপথ নিচ্ছি, নতুন বাংলাদেশ আমরা গড়বই।









Leave a reply