ওজন কমাবে গ্রিন টি

|

সারা দিনের ক্লান্তি দূর করতে এক কাপ চা সবচেয়ে কার্যকরী দাওয়া। তবে চা যদি খেতেই হয় গ্রিন টি হতে পারে ভালো চয়েজ। তবে প্রশ্ন হলো কেন গ্রিন টি?

গ্রিন টি ওজন কমায়। গ্রিন টি হজম প্রক্রিয়াকে বাড়িয়ে শরীরের অতিরিক্ত মেদ কমিয়ে ফেলতে সাহায্য করে। গ্রিন টি উপস্থিত কেটাচিন পেটের মেদ ঝরাতে অগ্রগণ্য ভূমিকা পালন করে থাকে। তাই অতিরিক্ত ওজন কমাতে নিয়মিত গ্রিন টি খেতে পারেন।

শরীরের রোগ-প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়াতে গ্রিন টির কোনো বিকল্প নেই। যারা অ্যালার্জিতে খুব ভুগেন তারা নিয়মিত গ্রিন টি পান করলে ভালো। এ ছাড়া গ্রিন টি খেলে শরীরের বিভিন্ন রোগ-প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ায়। আর রোগ-প্রতিরোধ ক্ষমতার উন্নতি ঘটলে অ্যালার্জির মতো রোগ ধারের কাছেও আসতে পারে না। এছাড়া ক্যান্সার, স্মৃতিশক্তির উন্নতি, হার্টঅ্যাটাক, রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণ ও ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণ করে গ্রিন টি।

গ্রিন টি কেন খাবেন?

গ্রিন টিতে রয়েছে ফ্লেভোনয়েড নামক একটি উপাদান, যা আসলে অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট। এটি এমন একটি শক্তিশালী উপাদান যা সব দিক থেকে শরীরকে চাঙ্গা রাখে। গ্রিন টি রোগ-প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ায়। এ ছাড়া কেটেচিন নামেও একটি উপাদান থাকে এই চায়ে, যা ভিটামিন ‘ই’ ও ‘সি’-এর থেকেও বেশি শক্তিশালী, যা শরীরে প্রবেশ করে একাধিক উপকার করে।

গ্রিন টি খেলে ওজন কমে।তবে কীভাবে খেলে ওজন কমে তা হয়তো অনেকে জানেন না।আসুন জেনে নেই কীভাবে গ্রি টি খেলে কীভাবে আপনার ওজন কমবে।

গ্রিন টি কখন খাবেন?

১. সকালের নাশতার পর গ্রিন টি খেতে পারেন।এতে সারাদিন শরীর ভালো থাকবে।

২. রাতে ঘুমাতে বিছানায় যাওয়ার ২ ঘণ্টা আগে গ্রিন টি খেতে পারেন।এ সময় গ্রিন টি খেলে তা ওজন কমাতে সাহায্য করবে।

৩.ব্যায়াম করার আধা ঘণ্টা আগে গ্রিন টি খেলে আপনার কর্মদক্ষতা বাড়বে। ফলে ওজন এবং মেদ কমাতে সাহায্য করবে।

৪. খাবার খাওয়ার কমপক্ষে ৪৫ মিনিট থেকে ১ ঘণ্টা পরে অথবা আগে গ্রিন টি পান করুন।

কখন গ্রিন টি খাবেন না

১. সকালে খালি পেটে গ্রিন টি ভুলেও খাবেন না।

২. খাওয়ার পরেও গ্রিন টি খাবেন না।

৩. ঘুম নিয়ন্ত্রণে গভীর রাতে গ্রিন টি পান করবেন না।









Leave a reply