কালাম চেয়ারম্যান আমার বড় ভাইয়ের মতো : রুমপাও মুরং

|

নির্বাচনে জয়ের পর শুভেচ্ছা গ্রহণ করার সময় এক মুরং নারীকে জড়িয়ে ধরা ছবি ফেসবুকে প্রকাশের পর রোববার থেকে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে তোপের মুখে বান্দরবনের আলীকদম উপজেলা চেয়ারম্যান আবুল কালাম। অনেকে যৌন হেনস্থার অভিযোগও এনেছেন তার বিরুদ্ধে।

রোববার রাতেই নিজের পক্ষে সাফাই গেয়ে ফেসবুকে পোস্ট দেন চেয়ারম্যান আবুল কালাম। দাবি করেন, মেয়েটিই তাকে জড়িয়ে ধরে। তিনিও সরল বিশ্বাসে তাকে জড়িয়ে ধরেন। বিষয়টি নিয়ে নোংরা রাজনীতি চলছে বলেও অভিযোগ করেন তিনি।

চেয়ারম্যানের পর মুখ খুললেন আলোচিত সেই মুরং নারীও। সোমবার বিকালে আলীকদমে এ বিষয়ে সংবাদ সম্মেলন আয়োজন করা হয়। সেখানে উপস্থিত হয়ে রুমপাও মুরং নামে ওই নারী ২২ মার্চের ঘটনার ব্যাখ্যা দেন। পাশে ছিলেন তার বড় ভাই, যিনি কিনা চেয়ারম্যান আবুল কালামের অত্যন্ত ঘনিষ্ঠ।

এসময় আলীকদমের চেয়ারম্যান আবুল কালামের বিরুদ্ধে কোন অভিযোগ নেই বলে জানান রুমপাও। বলেন আবুল কালাম তার বড় ভাইয়ের মতো। বাংলা বলতে পারেন না তিনি। বুঝতেও পারেন না তেমন একটা। সংবাদ সম্মেলনে রুমপাও তার বক্তব্য ম্রো ভাষায় উপস্থাপন করেন, সেটা নিজের মতো করে অনুবাদ করে সাংবাদিকদের জানান তার বড় ভাই।

সংবাদ সম্মেলনের ভিডিও:

সংবাদ সম্মেলনে বড় ভাইয়ের ভাষ্যমতে রুমপাও মুরং বলেন, আবারও বিজয়ী হওয়ায় আমাদের বড়ভাই আবুল কালামকে আমরা খুশি হয়ে গলায় মালা পরিয়ে দেই। আমরা এই নির্বাচন নিয়ে অনেক পরিশ্রম করেছিলাম, তাই সে বিজয়ী হওয়ায় আমি খুশিতে কেঁদে দিয়েছিলাম। ওদিনের ঘটনায় আবুল কালামের কোন ভুল নেই। আমরা মুরং, চাকমা,ত্রিপুরা ও পাহাড়ী বাঙ্গালী এখানে মিলেমিশে আছি। এটা দেখে বাইরের অনেকে নাখোশ হয়। তারাই এসব ছবিকে ভুলভাবে উপস্থাপন করে ইন্টারনেটে নানা জায়গায় ছড়িয়ে উস্কানি দিচ্ছে।

এসময় ‍রুমপাও মুরং বলেন, আমরা সবাই মিলেমিশে খুব খুশি আছি। এটা নিয়ে আমরা কোন অভিযোগ করবোনা। এসময় সাংবাদিকরা আবুল কালাম তাকে ইচ্ছার বিরুদ্ধ জড়িয়ে ধরেছেন কিনা এমন প্রশ্ন করলে, তিনি সেটা অস্বীকার করেন।

যমুনা অনলাইন/ ইএ









Leave a reply