যৌনপল্লীতে প্রেমিকাকে বিক্রির সময় প্রেমিক আটক

|

রাজবাড়ী প্রতিনিধি

রাজবাড়ী জেলার দৌলতদিয়া যৌনপল্লীতে বিক্রির সময় এক কিশোরীকে (১৫) উদ্ধার করা হয়েছে । এ ঘটনায় এক যুবক কে আটক করেছে গোয়ালন্দ ঘাট থানা পুলিশ। দৌলতদিয়ার যৌনপল্লী এলাকার ১নং গেটের পাশে কুষ্টিয়া চুয়াডাঙ্গা বোডিং এর সামনে বুধবার রাতে এ ঘটনা ঘটে।

আটক মিজানুর রহমান ওরফে জিয়ারুল ইসলাম (৩৬) রাজশাহী জেলার বাঘা উপজেলার লক্ষ্মীনগর গ্রামের তফিল উদ্দিন গারোয়ানের পুত্র। বৃহস্পতিবার সকালে গোয়ালন্দ ঘাট থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মো: এজাজ শফী বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

কিশোরী জানায়, মিজানুর রহমানের সাথে ১ মাস পূর্বে মোবাইল ফোনের মাধ্যমে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে উঠে। বিয়ের আশ্বাস দিয়ে বুধবার দুপুরে রাজবাড়ীতে নিয়ে আসে। প্রেমের নামে প্রতারনা করে বিক্রি করে দেয়ার চেষ্টা করে, মেয়েটি গোয়ালন্দ থানা পুলিশের কাছে কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করে বলেন, তারা সময়মত উপস্থিত না হলে হয়ত আমাকে চিরদিনের জন্য অন্ধকার জগতে পড়ে থাকত হতো।

গোয়ালন্দ ঘাট থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মো: এজাজ শফী জানান, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে যৌনপল্লীতে বিক্রির চেষ্টাকালে কিশোরীকে উদ্ধার করা হয়েছে। এসময় মিজানুর রহমানকে হাতে নাতে আটক করা হয়েছে। তার বিরুদ্ধে ২০১২ সালের মানবপাচার প্রতিরোধ ও দমন আইনে মামলা দায়ের করা হয়েছে। এ ঘটনায় আরও ২/৩ জন জড়িত আছে বলে প্রাথমিক ভাবে জানা গেছে।









Leave a reply