ছাত্রীকে যৌন হয়রানি: আন্দোলনের মুখে বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষককে সাময়িক বরখাস্ত

|

ছাত্রীকে যৌন হয়রানির ঘটনায় অভিযুক্ত এক শিক্ষককে সাময়িক বরখাস্ত করেছে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ। ঘটনার প্রায় দুই মাস পর শিক্ষার্থীদের আন্দোলনের মুখে তাকে অব্যাহতি দেয়া হল।

আজ রবিবার বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসি প্রফেসর ড. খোন্দকার নাসির উদ্দিনের সভাপতিত্বে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন জরুরি বৈঠকে বসে। কম্পিউটার ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের প্রধান ও সহকারী অধ্যাপক মো. আক্কাস আলীকে বিভাগীয় প্রধান ও বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রশাসনিক দায়িত্ব থেকে সাময়িক বহিষ্কারের সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয়।

এছাড়া এ ঘটনার তদন্তে একটি টিম গঠন করা হয়েছে। আগামী ৫ কর্ম দিবসের মধ্যে এ তদন্ত কমিটি প্রতিবেদন দাখিল করবে।

ওই শিক্ষকের অধীনে থিসিস করতে থাকা ওই বিভাগের দুই ছাত্রী গত মাসে ওই শিক্ষকের বিরুদ্ধে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের কাছে যৌন হয়রানির লিখিত অভিযোগ করেন। কিন্তু বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন অভিযুক্ত শিক্ষকের বিরুদ্ধে শাস্তিমূলক ব্যবস্থা গ্রহণ না করায় বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের মধ্যে ক্ষোভের সঞ্চার হয়।

আজ রবিবার সকাল ১০ টা থেকে ওই শিক্ষকের বহিষ্কারের দাবিতে শিক্ষার্থীরা ক্লাস বর্জন করে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রশাসনিক ভবনের সামনে বিক্ষোভ প্রদর্শন শুরু করে। পরে তারা ওই শিক্ষকের কুশপুত্তলিকায় আগুন দিয়ে তার প্রত্যাহার দাবি করতে থাকেন। অবস্থা বেগতিক দেখে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন জরুরি বৈঠকে বসে ওই শিক্ষককে বহিষ্করের সিদ্ধান্ত নেয়।









Leave a reply