অন্যের বাড়িতে ডাকাতি প্রতিরোধ করতে গিয়ে প্রাণ দিলেন তারা


ফরিদপুরে পৃথক ঘটনায় ডাকাতের গুলিতে ৩ জন নিহত হয়েছেন। এ ঘটনায় আহত অন্তত দুইজনকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

পুলিশ জানায়, চরভদ্রাসন উপজেলার মৃধাডাঙ্গী এলাকায় গত রাতে একদল ডাকাত একটি বিয়ের অনুষ্ঠানে ডাকাতি করে মালামাল লুট করে। এরপর পাশের আরও দুটি বাড়িতে ডাকাতি করে পালানোর সময় এলাকাবাসী মসজিদের মাইকে ঘোষণা দিলে স্থানীয়রা রুখে দাঁড়ান। এসময় ডাকাতদের ধাওয়া দিলে এলাকাবাসীর ওপর গুলি চালায় তারা।

গুলিতে আহতদের ফরিদপুরে মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হলে সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মো. সাজ্জাদ মৃধা (৩০) ও সেন্টু মৃধা (২৮) মারা যায়। নিহতরা চাচাতো ভাই। অবস্থা আশঙ্কাজনক হওয়ায় আলামিন ফকিরকে ঢাকায় পাঠানো হয়েছে।

বাড়ির গৃহকর্তা সামছেল ফকির জানান, তার ছেলের বিয়ের দিন ধার্য ছিল আজ বৃহস্পতিবার। রাতে বাড়ির সবাইকে জিম্মি করে ডাকাতরা ৪৫ ভরি স্বর্ণালংকার ডাকাতি করে নিয়ে যায়।

অন্যদিকে ফরিদপুরের সদরপুর থানার ওসি হারুন-অর রশিদ জানায়, রাতে ঢেউখালি ইউনিয়নের মুন্সিরচর এলাকায় সুলতান খা’র বাড়িতে ডাকাতরা হানা দেয়। এ সময় বাড়ির লোকজন তাদের প্রতিরোধ করতে গেলে ডাকাতের গুলিতে মালেক খাঁ (৩৫) নামে এক ব্যক্তি নিহত হন।

মরদেহ তিনটি ময়নাতদন্তের জন্য ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মর্গে পাঠিয়েছে পুলিশ।









Leave a reply