রোহিঙ্গা নির্যাতনের অভিযোগ অস্বীকার সেনাবাহিনীর

|

রাখাইনে রোহিঙ্গা সংকটের জন্য দায়ী নয় মিয়ানমার সেনাবাহিনী। সংকটের বিষয়ে দেশটির সেনাবাহিনীর বিশেষ তদন্ত প্রতিবেদনে এ তথ্য তুলে ধরা হয়েছে।

তদন্ত প্রতিবেদনের ফলাফল ফেসবুক পোস্টে তুলে ধরেন  সেনা প্রধান জেনারেল মিন অং লাইং। প্রতিবেদনে বলা হয়, রাখাইনে কোনো ধরনের হত্যা, নির্যাতন বা ঘরবাড়ি পুড়িয়ে দেয়ার মতো ঘটনা ঘটেনি। তদন্তে রোহিঙ্গা নারীদের ধর্ষণ বা যৌন নিপীড়নের ঘটনাও পুরো অস্বীকার করেছে সেনারা। বলপূর্বক গ্রাম ছাড়ার বিষয়টিকেও নাকচ করে তারা। অন্যদিকে, সেনাদের তদন্ত প্রতিবেদনকে আইওয়াশ হিসেবে আখ্যা দিয়েছে অ্যামনেস্টি ইন্টারন্যাশনাল।

এদিকে রাখাইনের সহিংসতার দায় সেনাবাহিনীর ওপর চাপিয়েছেন ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী থেরেসা মে। তিনি বলেন, “রোহিঙ্গা সংকট সমাধানে সবাইকে এগিয়ে আসতে হবে। এখনো রাজ্যটি থেকে পালাচ্ছে রোহিঙ্গারা। জাতিগত নিধন চলায় ভয়াবহ মানবিক সংকটের মুখে নৃতাত্ত্বিক গোষ্ঠীটি। কোনো ভাবেই এর দায় এড়াতে পারে না মিয়ানমার সেনাবাহিনী। সহিংসতার জন্য তারাই দায়ী।”

যমুনা অনলাইন: আরএএম









Leave a reply