প্রাণসহ বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের ৫২টি নিম্নমানের পণ্য বাজার থেকে সরানোর নির্দেশ

|

বিএসটিআই ঘোষিত ৫২টি নিম্নমানের পণ্য বাজার থেকে অবিলম্বে সরানোর নির্দেশ দিয়েছেন হাইকোর্ট। দুপুরে ৫২টি ভেজাল পণ্য সংক্রান্ত রিটের শুনানিতে এ নির্দেশ দেন আদালত।

এর আগে গত বৃহস্পতিবার সকালে বিএসটিআই ল্যাবে পরীক্ষায় অকৃতকার্য হওয়া ৫২টি ভেজাল ও নিম্নমানের পণ্য বাজার থেকে প্রত্যাহার চেয়ে হাইকোর্টে রিট করা হয়। এরপর দুপুরে শুনানি শেষে বিএসটিআই ও নিরাপদ খাদ্য অধিদপ্তরের ডেপুটি ডিরেক্টরদের আজ রোববার আদালতে হাজিরের নির্দেশ দেন হাইকোর্ট।

আজ সকালে শুনানি সময় আদালত বলেন, দরকার হলে এসব পণ্য খাবে না মানুষ। তবুও এসব অনিয়ম বরদাস্ত করা যায় না। এর আগে বিএসটিআই ও নিরাপদ খাদ্য কর্তৃপক্ষের দুজন ডেপুটি ডিরেক্টর পর্যায়ের কর্মকর্তা আদালতে হাজির হন।

আদালত আরও বলেন, পণ্য ভেজালের রোধে বিএসটিআই, নিরাপদ খাদ্য কর্তৃপক্ষ, ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তর, সবাই দায়িত্বপ্রাপ্ত। টিভিতে বিজ্ঞাপন দেয় তার পণ্যই সেরা, আর বাজারে গেলে দেখা যায় সেটাই ভেজাল বেশি। এটা একটা প্রতারণা।

আদালত বলেন, খাদ্য ভেজালের কারণে কিডনি ও ক্যান্সার রোগ বেড়ে গেছে দেশে। আমাদের কোথাও যাবার নেই। দেশে খাদ্য ভেজাল রোধে যেসকল আইন আছে সেটা যথেষ্ট শক্তিশালী। নিরাপদ খাদ্য কর্তৃপক্ষ করছেটা কী? তাদের কাজ কী? তারা সারা বছর কেন অভিযান চালায় না? সারাবছর চুপ, রোজা আসলেই তোড়জোড়।

৫২টি পণ্য হলো- প্রাণের হলুদ গুঁড়া, ফ্রেশের হলুদ গুঁড়া, মোল্লা সল্টের আয়োডিন যুক্ত লবণ, প্রাণের কারি পাউডার, ড্যানিশের কারি পাউডার, সিটি ওয়েলের সরিষার তেল, গ্রিন ব্লিচিংয়ের সরিষার তেল, শমনমের সরিষার তেল, বাংলাদেশ এডিবল ওয়েলের সরিষার তেল, কাশেম ফুডের চিপস, আরা ফুডের ড্রিংকিং ওয়াটার, আল সাফির ড্রিংকিং ওয়াটার, মিজানের ড্রিংকিং ওয়াটার, মর্ণ ডিউয়ের ড্রিংকিং ওয়াটার, প্রাণের লাচ্ছা সেমাই, ডুডলি নুডলস, শান্ত ফুডের সফট ড্রিংক পাউডার, জাহাঙ্গীর ফুড সফট ড্রিংক পাউডার, ড্যানিশের হলুদের গুঁড়া, এসিআইয়ের ধনিয়ার গুঁড়া, বনলতার ঘি, পিওর হাটহাজারী মরিচ গুঁড়া, মিস্টিমেলার লাচ্ছা সেমাই, মধুবনের লাচ্ছা সেমাই, মিঠাইয়ের লাচ্ছা সেমাই, ওয়েল ফুডের লাচ্ছা সেমাই, এসিআইয়ের আয়োডিনযুক্ত লবণ, কিংয়ের ময়দা, রূপসার দই, মক্কার চানাচুর, মেহেদীর বিস্কুট, বাঘাবাড়ীর স্পেশাল ঘি, নিশিতা ফুডসের সুজি, মধুবনের লাচ্ছা সেমাই, মঞ্জিলের হলুদ গুঁড়া, মধুমতির আয়োডিনযুক্ত লবণ, সান ফুডের হলুদ গুঁড়া, গ্রিন লেনের মধু, কিরণের লাচ্ছা সেমাই, ডলফিনের মরিচের গুঁড়া, ডলফিনের হলুদের গুঁড়া, সূর্যের মরিচের গুঁড়া, জেদ্দার লাচ্ছা সেমাই, অমৃতের লাচ্ছা সেমাই, দাদা সুপারের আয়োডিনযুক্ত লবণ, মদিনার আয়োডিনযু্ক্ত লবণ ও নুরের আয়োডিনযুক্ত লবণ ডানকানের ন্যাচারাল মিনারেল ওয়াটার, আরার ডিউ ড্রিংকিং ওয়াটার, দীঘির ড্রিংকিং ওয়াটার।









Leave a reply