দ. কোরিয়াতে যেভাবে পালিত হয় বাংলা নববর্ষ

|

বাঙ্গালীদের ঐতিহ্যের বাংলা নববর্ষ-১৪২৬ বেশ জাকজমকভাবেই এবছর দক্ষিণ কোরিয়াতে পালিত হয়। রোববার সাপ্তাহিক ছুটির দিনে দক্ষিণ কোরিয়ার বাংলাদেশীরা নাচে-গানে, মঙ্গল শোভাযাত্রার মাধ্যমে বরণ করে নেয় বাংলা নতুন বর্ষকে। দক্ষিণ কোরিয়ার রাজধানী সিউলের হিউম্যান ব্রীজের রোজ গার্ডেনে আয়োজন করা হয় বর্ণাঢ্য পহেলা বৈশাখ অনুষ্ঠানের। অনুষ্ঠানের আয়োজক “বাংলাদেশ কালচারাল এসোশিয়েশান ইন কোরিয়া” এবং সহ আয়োজক হিসাবে সাথে ছিল “বাংলাদেশ কমিউনিটি ইন কোরিয়া” এবং প্রচারণায় সাথে ছিল “বাংলাদেশি স্টুডেন্ট এসোশিয়েশান ইন কোরিয়া”।

প্রবাসে আবহমান বাংলার চিরকালীন সাংস্কৃতিক আবহটি তুলে ধরাটা বেশ কষ্টের হলেও প্রবাসী বাংলাদেশিরা বাংলা নববর্ষকে নিজেদের মতো করে উদযাপনের চেষ্টা করেন। দেশীয় ঐতিহ্যের নানা বিষয় নিজেরা প্রবাসে সংগ্রহ করে পালন করে বছরের প্রথম দিনটি। বাংলা নববর্ষের মতই নেপাল, শ্রীলংকাতেও একই দিনে নববর্ষ পালন করে। একারণে শ্রীলংকার ছাত্র-ছাত্রীরাও এই অনুষ্ঠানে যোগদান করে।

অনুষ্ঠানে খাবারের আয়োজনও ছিলো ঠিক দেশের মতই। প্রথমে অতিথিদের পান্তা-ইলিশ আর ভর্তা পরিবেশন করা হয় এবং পরে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের পাশাপাশি পরিবেশন করা হয় জিলাপী, রসগোল্লা, নাড়ু, পাটিসাপটা, কালোজাম, সিঙ্গাড়া। বাংলাদেশ কালচারাল এসোসিয়েশন ইন কোরিয়া বিগত কয়েক বছর জুড়ে কোরিয়ার সাধারণ জনগণের কাছে বাংলাদেশের ঐতিহ্য ও সংস্কৃতিকে তুলে ধরার পাশাপাশি কোরিয়ায় বসবাসকারী সংস্কৃতিমনা বাংলাদেশীদের সংস্কৃতি চর্চা করার একটি কমন প্ল্যাটফর্ম হিসেবে কাজ করছে।









Leave a reply